স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: সরকারি দফতরের বিদ্যুৎ অপচয় রুখতে এবার কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে প্রশাসন৷ বিভিন্ন সরকারি দফতরে বসানো হচ্ছ বিদ্যুতের প্রিপেড মিটার৷ এই বিষয়ে একটি আলোচনা সভাও অনুষ্ঠিত হয় কোচবিহারে ল্যান্সডাউন হলে৷ উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক কৌশিক সাহা-সহ বিভিন্ন বিভাগের আধিকারিকরা৷

বিদ্যুৎ দফতর সূত্রে খবর, বিভিন্ন সরকারিদফতর গুলিতে লক্ষাধিক টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় লোকসান বাড়ছে৷ তাই এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে রাজ্য জুড়ে সরকারি দফতরগুলিতে এই প্রিপেড মিটার ব্যবস্থা চালু হচ্ছে৷ এর মাধ্যমে বিভিন্ন দফতর নিজেদের প্রয়োজন মতো টাকা রিচার্জ করে নিতে পারবে৷ যতটুকু মূল্য দেবে সেই অনুপাতেই মিলবে পরিষেবা৷

আরও পড়ুন: রাশিয়ায় রোনাল্ডো রাজ, স্পেনের বিরুদ্ধে ড্র করল পর্তুগাল

রিচার্জের টাকা শেষ হয়ে গেলে সঙ্গে সঙ্গে ফের টাকা দিতে হবে৷ নতুবা সেই দফতরের বিদ্যুৎ পরিষেবা বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে৷ এক্ষেত্রে যখন রিচার্জ করা অর্থের পরিমাণ শেষের পথে, আগেভাগেই দফতরগুলির কাছে বিভিন্ন সঙ্কেত আসতে শুরু করবে৷

আধিকারিকদের মতে, অত্যাধুনিক এই প্রিপেট মিটার চালু হলে লাভ বাড়বে৷ একদিকে যেমন বিদ্যুৎদফতরের বকেয়া টাকা মিটবে৷ তেমনি সরকারি দফতরগুলির বেহিসাবি বিদ্যুৎ ব্যবহারের প্রবণতাতেও লাগাম টানা সম্ভব হবে৷ কেন না বিভিন্ন সরকারি দফতরগুলোতে বিদ্যুৎ বিলের প্রচুর টাকা বাকি থেকে যায়৷

আরও পড়ুন: ৬ গোলের থ্রিলার দেখল সোচি

ইচ্ছমতো বিদ্যুৎ অপব্যবহারও করার প্রবণতা বিভিন্ন দফতরে যথেষ্ট পরিমাণে দেখা গিয়েছে৷ এবার সরকার এইসব অপচয়কে রুখতে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ এদিনের অনুষ্ঠানে এই সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিষদে আলোচনা করেন আধিকারিকরা৷ পরে জেলাশাসক কৌশিক সাহা সাংবাদিকদের জানান, মূলত যেসব দফতর পাঁচ কিলো ওয়াটের কম বিদ্যুৎ ব্যবহার করে, সেইসব দফতরেই এই প্রিপেড মিটার বসানো হবে৷