কলকাতা: ফের কলকাতায় প্রসূতি মৃত্যুতে উত্তেজনা হাসপাতালে। নিউআলিপুরের সিএমআরআই হাসপাতালে এই মর্মান্তিক ঘটনার কথা সামনে এসেছে। উত্তেজনা এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে।, চিকিৎসককে মৃতার স্বামী চড় মারেন বলেও অভিযোগ ওঠে। হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজে সেই ঘটনা ধরাও পড়ে।

পরিবারের তরফে দাবি, সিজারের পর বুধবার রাতে জানানো হয়েছিল শিশু ও মা দু’জনেরই শারীরিক অবস্থা একেবারেই ঠিক রয়েছে। কিন্তু বৃহস্পতিবার হঠাৎ করেই ভোররাতে জানানো হয় আইসিইউ-তে ভরতি করতে হয়েছে শিশুর মাকে।

আর এতেই ব্যাপক ক্ষোভ ছড়িয়েছে পরিবারের সকলের মধ্যে। কীভাবে সিজারের পর প্রসূতির মৃত্যু হল, কেন পরিবারকে কিছুই জানানো হল না এ প্রশ্ন তুলেছে পরিবারের লোকেরা। ইতিমধ্যে হাসপাতালে পৌঁছেছে বিরাট পুলিশ বাহিনী।

মৃতার পরিজনেরা জানিয়েছেন রাতের বেলা ভিজিটিং আওয়ারেও সুস্থ ছিলেন ওই মহিলা। তাঁদের প্রশ্ন কী এমন হয়ে গেল যে কয়েক ঘন্টা যেতে না যেতেই এই মর্মান্তিক পরিণতির মুখোমুখি হতে হল? বাকবিতন্ডার মধ্যেই

উল্লেখ্য, কদিন আগেই প্রসূতির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল মুর্শিদাবাদের লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে। অভিযুক্ত চিকিৎসককে মৃতদেহের সামনে গলায় মালা পরিয়ে বিক্ষোভ দেখান মৃতের পরিবারের লোকেরা। পরিবারের লোকজনের দাবি ছিল চিকিৎসায় গাফিলতিতেই মৃত্যু হয়েছিল ওই প্রসূতির।