সুজয় পাল: গাড়ি চুরির টাকাতেই টলিউডের সেলেবদের নিয়ে পার্টি করত ‘প্রযোজন’ প্রতীক ভট্টাচার্য৷ সেই পার্টিতেই সেলেবদের সঙ্গে ছবি তুলে নিজেকে বড়মাপের প্রযোজক বলে দাবি করে বিভিন্ন সংস্থা থেকে গাড়ি ভাড়া নিয়ে ওএলএক্সে বেচে দিত সে৷ পুলিশি জেরায় এমনটাই স্বীকার করেছে অভিযুক্ত যুবক৷

ধৃতকে জেরা করে পুলিশ জানতে পেরেছে, গাড়ি চুরি চক্রের কারবারের সঙ্গে সে দীর্ঘদিন ধরেই যুক্ত৷ সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়েই সেলেবদের জন্য গাড়ি ভাড়া করার বাহানায় ২০০টি গাড়ি বেচে দিয়েছে প্রতীক৷ আর সেই টাকাতেই ‘প্রযোজক’ হয়ে উঠেছিল সে৷ মাত্র দু’টি শর্ট ফিল্ম বানিয়েই নিজেকে বড়মাপের প্রযোজক বলে দাবি করত৷ সৌজন্যে বিভিন্ন টলি সেলেবদের সঙ্গে তোলা ছবি৷

আরও পড়ুন: দশ বছর পর চালকের আসনে বসেই বৃদ্ধাকে পিষে মারল বধূ

প্রসঙ্গত, টলিউড সেলিব্রিটিরা চড়বে বলে বিভিন্ন সংস্থা থেকে একাধিক গাড়ি ভাড়া নিয়ে তা ওএলএক্সে বেচে দেওয়ার অভিযোগে শনিবার প্রতীককে গ্রেফতার করে কলকাতার পূর্ব যাদবপুর থানার পুলিশ৷ রাজ্যের বিভিন্ন থানাতেই তার নামে প্রচুর অভিযোগ রয়েছে৷ সবমিলিয়ে দু’শোর বেশি দামি গাড়ি বিক্রি করে দিয়েছে প্রতীক৷ পুলিশ জানিয়েছে, বিভিন্ন জায়গা থেকে গাড়ি ভাড়া নেওয়ার পর বিশ্বাস অর্জনের জন্য কয়েকমাসের ভাড়া শোধ করত প্রতীক৷ তারপর ভাড়া না দিত না৷ যোগাযোগ করলে বলত ভিনরাজ্যে সিনেমার শুটিংয়ে ব্যস্ত রয়েছে৷ ফিরে এসে টাকা দেবে৷ এভাবে কিছুদিন কাটিয়ে দেওয়ার পরে মোবাইল বন্ধ করে দিত৷ আর ততদিনে গাড়ি বেচার হজম করে নিত৷

এহেন প্রযোজনেক অতীত ঘাঁটতে গিয়ে পুলিশ জানতে পেরেছে, ক্লাস টেন পাশ প্রতীক প্রথমে একটি ক্যাটারিং সংস্থআয় কাজ করত৷ সেখানে বাজারঘাট করার জন্য তাকে একটি মোটরবাইক দেওয়া হয়৷ সেই গাড়ি সারাতে গিয়ে তার সঙ্গে পরিচয় হয় এক মেকানিকের৷ তার মাধ্যমেই গাড়ি চোরাচালানের ব্যবসায় পা রাখে সে৷ তারপর বিভিন্ন সময় ওই মেকানিকের মাধ্যমে গাড়ি বিক্রি করেছে সে৷

আরও পড়ুন: মেটিয়াবুরুজে বাথরুমে রহস্যমৃত্যু এক বছরের শিশুর

কিন্তু টলিউডে যোগাযোগ কীভাবে?

পুলিশি জেরায় প্রতীক জানায়, সপ্তম শ্রেণীতে পড়ার সময় কোনও একটি সিনেমায় মুখ দেখিয়েছিল সে৷ সেই থেকে টলিউডের কয়েকজনের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল৷ গাড়ি বেচে হাতে মোটা টাকা আসতেই সিনেমা প্রযোজনার নামে টলিউডে এন্ট্রি নেয় সে৷ তারপর বিভিন্ন সেলিব্রিটির সঙ্গে যোগাযোগ তৈরি করে৷ নানা অছিলায় তাদের সঙ্গে ছবি তুলে তার অপব্যবহার শুরু করে৷

আরও বড় সেলিব্রিটির কাছে ঘেঁষার জন্যই সে বিভিন্নসময় পাঁচতারা হোটেলে পার্টি দিত৷ বাড়ত নিজের স্ট্যাটাস৷ আর সেই সঙ্গে বড় সেলিব্রিটিদের কাছে ঘেঁষে নিজেকে আরও বড় প্রযোজক হিসেবে তুলে ধরাই তার মূল উদ্দেশ্য৷ এসব করেই মার্সিডিজের মতো দামি গাড়িও ভাড়া নিয়ে বিক্রি করেছে সে৷

আরও পড়ুন: নারদা-কাণ্ডে ম্যাথু স্যামুয়েলকে তলব সিবিআইয়ের