নয়াদিল্লি: ফের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিলেন বিদ্বজনেরা৷ এবার আগের ৪৯ জন নন৷ নতুন করে ৬১ জন বিশিষ্ট নাগরিক এই চিঠি দিয়েছেন৷ চিঠির বিষয় অবশ্যই গণপিটুনির হার বৃদ্ধি ও রাজনৈতিক হিংসার ঘটনার বিরোধিতা৷ তাঁদের মতে এর আগে যে ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি গণপিটুনি নিয়ে চিঠি দিয়েছিলেন, তাঁদের পক্ষপাতিত্ব দেখে রীতিমত অবাক তাঁরা৷

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া এই চিঠিতে সই করেন সিবিএফসি প্রধান প্রসূন যোশী, বলিউড অভিনেতা কঙ্গনা রানাওয়াত, চিত্র পরিচালক মধুর ভাণ্ডারকর ও বিবেক অগ্নিহোত্রী, শাস্ত্রীয় নৃত্যশিল্পী ও রাজ্যসভার সাংসদ সোনাল মানসিং৷তাঁরা বলেন বিরোধী মতপ্রকাশের নামে কার্যত পক্ষপাতিত্ব করেছেন তাঁরা৷ প্রধানমন্ত্রীর বিরোধিতা করতে গিয়ে আগের চিঠিতে অসত্য ভাষণ করা হয়েছে৷

আরও পড়ুন : #NRC অসম থেকে বাংলাদেশি হিন্দু-মুসলিমদের ফেরত পাঠানো হচ্ছে

শুক্রবার দেওয়া চিঠিতে এই বিজেপিপন্থী বিদ্বজনেরা লেখেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একাধিকবার প্রকাশ্যে গণপিটুনি ও রাজনৈতিক হিংসার বিষয়ে সরব হয়েছেন৷ আগের চিঠিতে বিদ্বজনেরা এই ঘটনাগুলির ভুল ব্যাখ্যা করেছেন বলে দাবি করেন প্রসূন যোশীরা৷ প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে যে বা যারা কলম ধরেছেন, তাঁরা তখন কোথায় ছিলেন, যখন মাওবাদীরা সন্ত্রাস চালায়? প্রশ্ন তোলা হয়েছে শুক্রবারের চিঠিতে৷

 

বলা হয়েছে, এই সব বিদ্বজনেরা তখন চুপ থাকেন, যখন কাশ্মীরে সন্ত্রাস হয়, স্কুল জ্বলে, বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীরা মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে৷

দিন তিনেক আগেই পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রের ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব প্রধানমন্ত্রীকে বেশ কিছু সামাজিক ইস্যুতে চিঠি লেখেন৷ সেখানে উঠে এসছিল গণপিটুনি, জয় শ্রী রাম ধ্বনি তুলে হিংসার বাতাবরণ তৈরির চেষ্টার অভিযোগ৷ শুক্রবার যে খোলা চিঠি মোদীকে পাঠানো হয়েছে, তার মধ্যে গত চিঠিরও উল্লেখ ছিল৷

আরও পড়ুন : এলাকায় মশার আস্তানা, একলক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা দিতে হতে পারে

একাধিক ইস্যু নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি পাঠান অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, মণি রত্নম, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অনুরাগ কাশ্যপ সহ মোট ৪৯জন তারকা৷ দেশের বহু বিশিষ্টজন একাধিক সামাজিক বিষয়ে উল্লেখ করেন এই চিঠিতে৷ সমস্যা সমাধানে ব্যবস্থা নিতে আর্জিও জানান৷ অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় আর্জি জানান, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে ধরে রাখা প্রয়োজন, অন্যদিকে কৌশিক সেনের মত ছিল, বিদ্বজ্জনেদের সই করা এই চিঠি খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ অপর্ণা সেনের মতে, প্রতিবাদের অধিকার থাকা উচিত, গণপিটুনির জন্য কারাদণ্ডের শাস্তি থাকা উচিত৷ তাঁদের প্রত্যেকের উদ্বেগ উঠে এসেছিল এই চিঠিতে৷ সেই চিঠির পূর্ণাঙ্গ বিরোধিতা করে শুক্রবার চিঠি দেন বিজেপিপন্থী বিদ্বজ্জনেরা৷