মুম্বই: জাতীয় নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে মেয়াদ শেষ হচ্ছে এমএসকে প্রসাদের৷ কিছু দিনের মধ্যেই নির্বাচক কমিটির নতুন চেয়ারম্যান বেছে নেন ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি৷ তবে তার আগে ফের আরও একবার জাতীয় দলে মহেন্দ্র সিং ধোনির প্রত্যাবর্তন নিয়ে মুখ খুললেন প্রসাদ৷

প্রায় ছ’মাস জাতীয় দলের বাইরে ধোনি৷ গত বিশ্বকাপ সেমিফাইনালের পর ভারতীয় দলের জার্সিতে দেখা যায়নি মাহিকে৷ ফলে সম্প্রতি বোর্ডের বার্ষিক চুক্তি থেকে বাদ গিয়েছে ধোনি নাম৷ দু’বারের বিশ্বকাপ জয়ী ভারত অধিনায়ককে কোনও ক্যাটাগরিতেই রাখা হয়নি৷ তবে এতেও দমে যাননি ধোনি৷ বোর্ডের বার্ষিক চুক্তি থেকে বাদ পড়ার দিনেই প্র্যাকটিসে নেমে পড়েন তিনি৷ রাঁচিতে ঝাড়খণ্ড রঞ্জি দলের সঙ্গে প্র্যাকটিস করতে দেখা যায় ধোনিকে৷

এরপরেও ধোনির অবসর নিয়ে উঠছে প্রশ্ন৷ মাহিকে আর কোনও দিন জাতীয় দলে দেখা যাবে? এই প্রশ্নও উঁকি মারছে ভারতীয় ক্রিকেটের অন্দরমহলে৷ চলতি বছর অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে বসছে টি-২০ বিশ্বকাপের আসর৷ এ কথা মাথায় রেখেই কি অবসর নিচ্ছেন না ধোনি? বিশ্বকাপের দলে ধোনির খেলার সম্ভাবনা কতটা?
এই প্রশ্নের উত্তরে জাতীয় নির্বাচক কমিটির প্রধান প্রসাদ বলেন, ‘আমি যতটা জানি, আমার তরুণদের সুযোগ দিচ্ছি৷ যাতে তারা সুযোগ পেয়ে সেটেল হতে পারে৷ মাহি সিদ্ধান্ত নিজে নেবে৷ নির্বাচক কমিটির সদস্যের কথা বাদ দিলে ব্যক্তিগতভাবে আমি ধোনির দারুণ ফ্যান৷ ও সব কিছুই অর্জন করেছে৷ দু’টি বিশ্বকাপ এবং একবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতেছে৷ ওর নেতৃত্ব ভারত টেস্টে এক নম্বর দল হয়েছে৷ সুতরাং ওকে নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলতে পারে না৷’

তবে ধোনির ক্রিকেট ভবিষ্যত নিয়ে প্রসাদের বক্তব্য, ‘ওর কেরিয়ার নিয়ে ও সিদ্ধান্ত নেবে৷ নির্বাচক হিসেবে আমাদের কাজ হল পরবর্তী প্রজন্মকে সুযোগ দিয়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া৷’ আর কিছুদিনের মধ্যে জাতীয় নির্বাচকের মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে প্রসাদের৷ যাওয়ার আগে পরবর্তী নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যানের কাছেও ধোনিকে প্রশ্নটা জিইয়ে রাখলেন প্রসাদ৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ