নয়াদিল্লি: সার্জারি হল করোনা আক্রান্ত প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখোপাধ্যায়ের। আপাতত ভেন্টিলেটর সাপোর্টে আছেন তিনি। ৮৪ বছর বয়সী প্রণব মুখোপাধ্যায় রুটিন চেক আপে গিয়েছিলে। সেখানেই তাঁর করনা টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। সোমবার নিজেই ট্যুইট করে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানান প্রণব মুখোপাধ্যায়।

তিনি লেখেন, ‘অন্য কারণে হাসপাতালে গিয়েছিলাম। এরপর আমার করোনা টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।’ আর্মি রিসার্চ অ্যান্ড রেফারাল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। আর সেখানে তাঁর ব্রেন সার্জারি হয়েছে। সফল সার্জারি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। জমাট বাঁধা রক্ত সরাতেই এই সার্জারি বলে জানা গিয়েছে। আপাতত সর্বক্ষণ তাঁর উপরব নজর রাখা হচ্ছে। তাঁর মেয়ে শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন রাহুল গান্ধী, পীযূষ গোয়েল প্রমুখ। এদিন হাসপাতালে নিয়ে তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। প্রায় ২০ মিনিট তিনি হাসপাতালে ছিলেন।

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে তথা কংগ্রেস নেতা অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় ট্যুইটারে লিখেছেন, ‘আমার বাবার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। দেশের সব মানুষের কাছে আমার আর্জি, প্রত্যেকে যেন বাবার দ্রুত আরোগ্য কামনা করে। রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটও প্রণব মুখোপাধ্যায়ের অসুস্থতার খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। ২০১২ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি পদে ছিলেন তিনি। তবে গত কয়েকদিনে তাঁর রাজাজি মার্গের ঠিকানায় মানুষের আনাগোনা কমেছিলে অনেকটা। অতিমারীর জন্যই এই সতর্কতা নিয়েছিলেন তিনি। সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথাবার্তা বন্ধ করে দিয়েছিলেন। হাতে গোনা কয়েকজন মানুষের সঙ্গেই দেখা করতেন তিনি।

সাম্প্রতিক সময়ে একাধিক রাজনৈতিক নেতা নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সেই তালিকায় রয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, অর্জুন রাম মেঘওয়াল, বিভাস সারাংঙ্গ, শিবরাজ সিং চৌহান, ধর্মেন্দ্র প্রধান, বি শ্রীরামুলু, কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা, কৃষিমন্ত্রী বিসি পটেল এবং কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়া এবং কারতি চিদাম্বরম।

জুলাই মাসের ২৫ তারিখ শিবরাজ সিং চৌহান করোনা পজিটিভ হয়েছিলেন। মোট ১১ দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। অগাস্টের ৫ তারিখ তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই দেশে করোনা সংক্রমণ দ্রুত গতিতে ছড়াচ্ছে। শেষ ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬২ হাজার ৬৪ জন। পাশাপাশি মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৭ জনের।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা