নয়াদিল্লি: মাথায় আঘাত নিয়ে সোমবারই হাসপাতালে ভর্তি হন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। হাসপাতালে গিয়ে তাঁর করোনা পরিক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তিনি করোনা আক্রান্ত বলে ট্যুইটে জানান প্রণব মুখোপাধ্যায়। এরপর রাতে তাঁর ব্রেন সার্জারি হয়।

সোমবার রাতেই জানা যায় যে, সার্জারির পর থেকে ভেন্টিলেশনে রয়েছেন তিনি। মঙ্গলবারও তাঁর অবস্থার খুব একটা উন্নতি হয়নি বলে হাসপাতালে সূত্রে খবর।

আর্মি রিসার্চ অ্যান্ড রেফারাল হাসপাতালে ব্রেন সার্জারি হয়েছে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের। মঙ্গলবার সেই হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে যে, সার্জারির পরও তাঁর অবস্থা সঙ্কটজনক রয়েছে এখনও। তিনি করোনা আক্রান্ত বলেও ওই হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে।

তবে সার্জারি সফল বলে জানানো হয়েছে হাসপাতালের তরফে।

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে তথা কংগ্রেস নেতা অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় ট্যুইটারে লিখেছেন, ‘আমার বাবার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। দেশের সব মানুষের কাছে আমার আর্জি, প্রত্যেকে যেন বাবার দ্রুত আরোগ্য কামনা করে। রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটও প্রণব মুখোপাধ্যায়ের অসুস্থতার খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

প্রথম বাঙালি রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। ২০১২ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি পদে ছিলেন তিনি। তবে গত কয়েকদিনে তাঁর রাজাজি মার্গের ঠিকানায় মানুষের আনাগোনা কমেছিলে অনেকটা। অতিমারীর জন্যই এই সতর্কতা নিয়েছিলেন তিনি। সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথাবার্তা বন্ধ করে দিয়েছিলেন। হাতে গোনা কয়েকজন মানুষের সঙ্গেই দেখা করতেন তিনি।

সাম্প্রতিক সময়ে একাধিক রাজনৈতিক নেতা নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সেই তালিকায় রয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, অর্জুন রাম মেঘওয়াল, বিভাস সারাংঙ্গ, শিবরাজ সিং চৌহান, ধর্মেন্দ্র প্রধান, বি শ্রীরামুলু, কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পা, কৃষিমন্ত্রী বিসি পটেল এবং কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়া এবং কারতি চিদাম্বরম।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও