নয়াদিল্লি: করোনা মহামারীর কারণে মানুষ স্বাস্থ্য সম্পর্কে আরও বেশি সচেতন হয়েছেন। এরফলে জীবন বীমার গুরুত্ব আরও বেড়েছে। এই মুহূর্তে মানুষ প্রচুর পরিমাণে বীমা করাচ্ছেন। তবে এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে এমন কিছু লোক আছেন যারা অনেক সমস্যার মুখোমুখিও হচ্ছেন। এমন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর সুরক্ষা বিমা যোজনা (Pradhan Mantri Suraksha Bima Yojana-PMSBY ) খুব কম প্রিমিয়ামে বীমা সরবরাহ করছে। PMSBY কেন্দ্রীয় সরকারের এমন একটি পরিকল্পনা, যার অধীনে গ্রাহকরা মাত্র ১২ টাকায় ২ লক্ষ টাকার একটি বীমা করার সুযোগ পায়। আসুন জেনে নেওয়া যাক এই স্কিম সম্পর্কে-

মে মাসের শেষে প্রিমিয়াম জমা করতে হয়

কেন্দ্রীয় সরকার কয়েক বছর আগে নাম মাত্র প্রিমিয়ামে প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বিমা যোজনা শুরু করেছিল। প্রধানমন্ত্রীর সুরক্ষা বিমা যোজনা (PMSBY)-এর বার্ষিক প্রিমিয়ামটি কেবল ১২ টাকা। গ্রাহকদের মে মাসের শেষে এই প্রিমিয়ামটি প্রদান করতে হয়। এই নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ ৩১ মে গ্রাহকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কেটে নেওয়া হয়। আপনি যদি PMSBY প্রকল্পটি নিয়ে থাকেন তবে আপনাকে অবশ্যই ব্যালেন্স অ্যাকাউন্টে রাখতে হবে।

PMSBY -এর বিশেষ শর্ত সম্পর্কে জেনে নিন

১৮ থেকে ৭০ বছর বয়সের লোকেরা প্রধানমন্ত্রীর সুরক্ষা বিমা যোজনা (PMSBY) প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবেন। এই প্রকল্পের বার্ষিক প্রিমিয়াম কেবল ১২ টাকা। পিএমএসবিওয়াই পলিসির প্রিমিয়ামটি সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হয়। পলিসি কেনার সময় ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টটির সঙ্গে PMSBY-এর সঙ্গে লিঙ্ক করানো হয়। এই প্রকল্প অনুসারে, বীমা কেনার পর কোনও গ্রাহকের মৃত্যু বা দুর্ঘটনার পর কাজ করার ক্ষমতা হারালে ২ লক্ষ টাকা পাওয়া যেতে পারে ।

কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন
ব্যাঙ্কের যে কোনও শাখায় গিয়ে এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারেন। এই প্রকল্পের জন্য ব্যাঙ্কের কর্মীরাও  বাড়ি বাড়ি যেতে পারে। এছাড়া বীমা এজেন্টরাও যোগাযোগ করতে পারে। সরকারী বীমা সংস্থা এবং অনেক বেসরকারী বীমা সংস্থাও এই বীমাটি বিক্রি করে থাকে ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.