নয়াদিল্লি: আলুর দাম গত এক দশকে সর্বোচ্চ পৌঁছে গিয়েছে। কেন্দ্রীয় ক্রেতা বিষয়ক খাদ্য ও গণবণ্টন মন্ত্রকের তথ্য জানাচ্ছে, গত ১৩০ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছে গিয়েছে আলুর দর। পাশাপাশি দেখা গিয়েছে, আলুর দাম গত এক বছরে দ্বিগুণ হয়েছে।

মন্ত্রকের হিসেবে অনুসারে দিল্লিতে চলতি অক্টোবর মাসে গড়ে আলুর দাম ৪০.১১ টাকা হয়। সামগ্রিক দেশের গড়ের তুলনায় দিল্লিতে দাম কিছুটা বেশি। তবে গোটা দেশের প্রায় সর্বত্রই আলুর দাম প্রতি কেজি ৪০ টাকার আশেপাশে। প্রায় ১১বছর আগে ২০১০সালে আলুর দাম এতটা বাড়তে দেখা গিয়েছিল।

তাছাড়া মন্ত্রকের হিসেব জানাচ্ছে, গতবছর ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে তুলনায় এখন আলুর দাম প্রায় দ্বিগুণ। গত অক্টোবরে গড়ে প্রতি কেজি আলুর দাম ছিল ২০.৫৭ টাকা ‌। তবে দিল্লিতে দাম কিছুটা বেশি ছিল, দাম ছিল ২৫ টাকার আশেপাশে।

কৃষি বিপণন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর এই সময় আলুর দাম কিছুটা বাড়ে। আবার শীতকালে নতুন আলু উঠলে দাম কিছুটা নেমে আসে। তারপর আবার ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাসে আলুর দাম বাড়তে দেখা যায়। তবে সামগ্রিকভাব গড়ে আলুর দাম ২৩ টাকা থাকে। সেই তুলনায় এবারের আলুর দাম লাগামছাড়া।

তাছাড়া শীতের মুখে গুদামে যে পরিমাণ আলু মজুদ রাখা হয় তার তুলনায় এবার কম আলু মজুদ রয়েছে ‌। তাছাড়া লকডাউনের জন্য সরবরাহ ব্যবস্থায় সমস্যা হয়েছে। দেখা গিয়েছে এপ্রিল মে মাস থেকে আলুর দাম বাড়ছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।