নয়াদিল্লি : করোনার কাঁপুনী অব্যাহত দেশে। মারণ ব্যাধির দ্বিতীয় ধাক্কায় ত্রাহি ত্রাহি রব চারিদিকে। এই অবস্থায় বাজারে ভ্যাকসিন বেরিয়ে গেলেও তাতে মিলছে না খুব একটা সুফল। এই অবস্থায় সংক্রমণ রুখতে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে দফায় দফায় লকডাউন, নাইট কার্ফু।

এবার করোনা ঠেকাতে চলতি মাসে কোনও অফলাইন পরীক্ষা নেওয়া যাবে না বলে ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রক।

সোমবার এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রকের সচিব অমিত খারে একটি চিঠিতে কেন্দ্রীয় সরকারের আওতাধীন সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের জানিয়েছেন যে, চলতি করোনা মহামারীর কারণে আপাতত মে মাসে কোনও অফলাইনে পরীক্ষা নেওয়া চলবে না। বন্ধ থাকবে সমস্ত স্কুল,কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়। তবে এই সময়ে অনলাইনে পরীক্ষা ও পঠনপাঠন চলবে। তবে পরবর্তীতে অফলাইন পরীক্ষা কবে নেওয়া হবে সে বিষয়ে এখনও পর্যন্ত বিস্তারিত ভাবে কিছু জানানো হয়নি।

চিঠিতে তিনি আরও জানান, চলতি করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে স্কুল কলেজ খোলা এবং পরীক্ষা নেওয়ার ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে নেওয়া হতে পারে।

এই সময়ে বন্ধ থাকবে আইআইটি, এনআইটি, আইআইআইটি এবং সমস্ত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়।

এছাড়াও চিঠিতে তিনি জানান, এই কঠিন সময়ে কেউ কোনও সমস্যায় পড়লে বা কারও কোনও সহায়তার দরকার পড়লে সংশ্লিষ্ট শিক্ষাকেন্দ্রের তরফে যেন অবিলম্বে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়।

শুধু তাই নয়, পরবর্তী সময়ে পরীক্ষা নেওয়ার আগে ডাক্তরি ও অন্যান্য প্রবেশিকা পরীক্ষার ছাত্রছাত্রীরা পড়ার জন্য একমাস সময় পাবেন। তারপরই পরীক্ষার দিনক্ষন ঘোষণা করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে সোমবার জাতীয় প্রবেশিকা পরীক্ষা (স্নাতকোত্তর ) কমপক্ষে চার মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে । প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের বর্তমান কোভিড -১৯ পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে নিট ও পিজি (NEET-PG) পরীক্ষা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

অন্যদিকে, দেশে অতিমারীর জন্য দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় তাদের চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা স্থগিত করেছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষাগুলি শুরু হওয়ার কথা ছিল ১৫ মে থেকে, যা করোনা অতিমারীর কারণে ছাত্রদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এর পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানের তরফে জানানো হয়েছিল পরিস্থিতি খানিকটা নিয়ন্ত্রণে এলে নেওয়া হবে এই পরীক্ষা। সেই কথা অনুসারে আগামী ১ জুন থেকে শুরু করা হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষাগুলি। সময়সূচি শীঘ্রই প্রকাশ করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়েছে, ২০২১ সালের মে জুনের চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা এবং সেমিস্টারগুলি ১৫ মে থেকে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও করোনা ভাইরাসের অতিমারীর কারণে তা দুটি সপ্তাহ পিছিয়ে ১ জুন থেকে শুরু করা হচ্ছে। এর পাশাপাশি বিজ্ঞপ্তিতে আরও যুক্ত করে বলে হয়েছে, ১৫ তারিখে আয়োজিত পরীক্ষার তালিকাটি প্রত্যাহার করা হয়েছে এবং ছাত্রদের সুবিধার জন্য আগামী কোন কোন তারিখে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে তা খুব শীঘ্রই প্রকাশ করা হবে বিশ্ববিদ্যালয় তরফে। চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষার সমস্ত সময়সূচি দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার পোর্টাল exam.du.ac.in ঠিকানায় প্রকাশ করা হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.