নয়াদিল্লি: সব কিছু ঠিকঠাক চললে বছর শেষের নির্ধারিত সময়েই বিহারে বিধানসভা ভোট হতে চলেছে। তবে করোনা আবহে এই প্রক্রিয়া সামলানো নির্বাচন কমিশনের কাছে মস্ত একটা চ্যালেঞ্জ। নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে, সব ধরনের স্বাস্থ্য বিধি মেনেই ভোট প্রক্রিয়া পরিচালনা করা হবে। এমনকী করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য পোস্টাল ব্যালটে ভোট নেওয়া যায় কিনা সেব্যাপারেও চিন্তাভাবনা শুরু করে দিয়েছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন।

দেশজুড়ে বেড়েই চলেছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। এই আবহেই বছর শেষে বিহারে বিধানসভা ভোট হবে। বর্তমান বিধানসভার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই বিহারের ২৪৩ আসনে ভোট করার ব্যাপারে প্রত্যয়ী নির্বাচন কমিশন। তবে বাদ সাধছে করোনা।

মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে তাই জোরদার তৎপরতা ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। সংক্রমণ এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কীভাবে বিহারে বিধানসভা ভোট পরিচালনা করা হবে সেব্যাপারে আলোচনা করছেন কমিশনের কর্তারা।

সেই কারণেই এবার বিহারের বিধানসভা ভোটের ক্ষেত্রে করোনা আক্রান্তদের জন্য পোস্টাল ব্যালট ব্যবহারের অনুমতি দেওয়ার কথা ভাবছে নির্বাচন কমিশন। শুধু করোনা আক্রান্তরাই নন। কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিরাও যাতে পোস্টাল ব্যালটের মাধ্যমে ভোট দিতে পারেন সেব্যাপারেও চিন্তাভাবনা করা শুরু হয়েছে।

দেশের একাধিক রাজ্যের পাশাপাশি বিহারেও করোনার সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত বিহারে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৮ হাজার ২০৯।

বিহারে করোনায় মৃত বেড়ে ৫৭। সংক্রমণ রুখতে একাধিক সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিচ্ছে বিহার সরকার। তবে আনলক ১ পর্বে লোকজন বাইরে বেরনোয় ও পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফেরায় সংক্রমণ বেশ খানিকটা বেড়ে গিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।