স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাজ্যে করোনা সংক্রমণ ক্রমশ বৃদ্ধি পাওয়ায় আজ, মঙ্গলবার নবান্নে স্বাস্থ্যকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও হাওড়া নিয়ে সেই বৈঠকে আলোচনা হবে। মালদহের মতো এই ৪ জেলাতেও ফের লকডাউন হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে।

কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও হাওড়ায় প্রতিদিন-ই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। বিশেষ করে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনায় প্রতিদিনই কমপক্ষে ২০০ জন করে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। বাকি দুই জেলা, হাওড়া ও দক্ষিণ ২৪ পরগনাতেও গড়ে ১০০ জন করে আক্রান্ত হচ্ছেন।

কলকাতায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৮১, যা এখনও পর্যন্ত রেকর্ড। মঙ্গলবার থেকে গত ১৪ দিনে শহরের যে ১৯টি এলাকায় করোনার প্রকোপ বেশি, সেখানে কঠোর নজরদারি রাখতে চলেছে প্রশাসন। ওই এলাকাগুলিতে গত কয়েক দিনে অন্তত ২১৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। উত্তরে বাগবাজার আর দক্ষিণে ভবানীপুর। করোনাভাইরাস সংক্রমণের নিরিখে আপাতত এই দুই এলাকাই সব চেয়ে বেশি উদ্বেগে রেখেছে পুলিশকে।

এদিকে, সোমবার রাত থেকেই বহু এলাকায় আগের মতোই বাঁশ দিয়ে ঘিরে দেওয়া শুরু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ওয়ার্ড অফিসে পুর স্বাস্থ্য দফতরের কর্তাদের সঙ্গে স্থানীয় থানার অফিসারেরা বৈঠকে বসে চূড়ান্ত করবেন নজরদারির পাকা বন্দোবস্ত। সব জায়গাতেই ২৪ ঘণ্টার পুলিশি পাহারার ব্যবস্থা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, লালবাজারের এক পদস্থ কর্তা নজরদারির কাজ পর্যালোচনা করবেন।

প্রসঙ্গত, জেলাজুড়ে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় সোমবার সন্ধ্যায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে মালদহে। বুধবার থেকে লকডাউন হবে দুটি ব্লক ইংরেজবাজার ও পুরাতন মালদহে। মূলত অতি প্রয়োজনীয় নিত্যসামগ্রী ও খাদ্যসামগ্রী দোকান ছাড়া সব-ই বন্ধ থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলাপ্রশাসন।

প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, বেসরকারি যানবাহনও বন্ধ থাকবে। সরকারি সূত্রে বলা হয়েছে, রাজ্য সরকারের বাসগুলি গৌড়কন্যা টার্মিনাল থেকে ছাড়ার পর দুই শহরের যে কোনও একটিতে দাঁড়াবে। সাইকেল রিক্সা এবং ই-রিক্সাও বন্ধ থাকবে।তবে নির্দিষ্ট তিনটি জায়গায় বেশ কিছু রিক্সা রাখা হবে। যা জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহার করা যাবে। ইংরেজ বাজারে সবজির বাজার জেলা সদর দফতর বেলা ১১ টা পর্যন্ত খোলা থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ