স্টাফ রিপোর্টার , কলকাতা : গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। বৃহস্পতিবার রাতে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায়। তবে হাওয়ায় মেঘ কেটে যায়। শুক্রবার সকাল থেকে আকাশ মেঘে ঢাকা। মেঘ জমাট এবং স্থায়ী হলে তা বৃষ্টি এবং ঝড়ের রূপ নিতে পারে বলে জানাচ্ছেন আবহবিদরা।

কলকাতাসহ ঝড় বৃষ্টি হতে পারে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, মুর্শিদাবাদ , নদীয়া, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর। এই জেলাগুলিতে ঝড়ের গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৪৫ কিলোমিটার। রাজ্যের পশ্চিমের জেলা পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম বর্ধমান, পূর্ব বর্ধমান, বাঁকুড়া বীরভূমেও বজ্রবিদ্যুৎসহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। দুর্যোগের সম্ভাবনা রয়েছে হাওড়া এবং হুগলী জেলাতেও।

বৃহস্পতিবার কলকাতার তাপমাত্রা ছিল সর্বোচ্চ ৩২.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। সর্বনিম্ন ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়া যা স্বাভাবিক। শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৩.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি কম। সর্বনিম্ন ২৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়া যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। এদিন আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৩ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৫৮ শতাংশ।

ফাইল ছবি৷

সবমিলিয়ে এপ্রিলেই চারটি এবং চৈত্রে আটটি কালবৈশাখী পেয়েছে মহানগর। যা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটাই বেশি বলে মনে করছে হাওয়ুয়া অফিস। এখনও পর্যন্ত চৈত্রের দহন সইতে হয়নি রাজ্যবাসীকে,মূলত দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। মঙ্গলবার দিন কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে দু’ডিগ্রি কম। এক দিন পেরিয়ে বৃহস্পতিবার কলকাতার তাপমাত্রা সর্বোচ্চ কমেছে। আজকের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩২.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে তিন ডিগ্রি কম। সর্বনিম্ন ২৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়া যা স্বাভাবিক। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৪ শতাংশ, সর্বনিম্ন ৬৩ শতাংশ।