লালবাজার অভিযান স্থগিত করল বিজেপি৷ কর্মকর্তারা দলীয় অফিসে ফিরে যাচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে৷ বিক্ষোভ প্রদর্শনের যে লক্ষ্য নিয়ে বিজেপি এই অভিযান শুরু করেছিল তাতে তারা সফল বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের৷ বুধবারের এই অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করে বিজেপি৷

  • লকেট- টিয়ার গ্যাস, জলকামান ছুঁড়ল৷ পরিবারের লোকের ওপর আঘাত করেছে৷ গুন্ডাবাহিনীর হাতে মমতার সরকার রয়েছে৷ বাংলাকে উনি সামলাতে পারছে না, তার পদত্যাগ করা উচিত৷
  • বিজেপিকে মমতা ভয় পাচ্ছে এটা সবথেকে বড় প্রমাণ৷ মিছিল পৌঁছনোর আগে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়া এমন দেখিনি৷ এই সরকার অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এগোচ্ছে, বেশিদিন টিকবে না৷ মমতার সরকার হেরেছে আজকের ঘটনা সবথেকে বড় প্রমাণ৷ যেদিকে রাজ্য যাচ্ছে, আমরা না চাইলে মমতা যেদিকে বাংলাকে নিয়ে যাচ্ছেন তিনি নিজেই ৩৫৬ করিয়ে ছাড়বেন৷ কিছুদিন পরে পুলিশের মধ্যেও বিদ্রোহ দেখতে পাবেন৷ রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি হলে মুখ্যমন্ত্রীই দায়ি থাকবে, এমনই দাবি বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার৷
  • দিলীপ ঘোষ- বহু কার্যকর্তা অসুস্থ হয়েছে৷ আহত হয়েছেন, হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে৷ আমাদের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সব দেখছেন৷ আইন-শৃঙ্খলা বলে কিছু নেই৷ ডাক্তার থেকে শুরু করে বিডিও, আইপিএস, কারও নিরাপত্তা নেই৷ কি করে এই সরকার চলবে, এমনটাই দাবি দিলীপ ঘোষ৷
  • সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ অবরোধ করে বিক্ষোভে বিজেপির কর্মী সমর্থক৷
  • দিলীপ ঘোষ- ‘যে নৃশংস রাজনীতি হচ্ছে তার বিরোধিতায় রাস্তায় নেমেছি৷ আইপিএস অফিসেরা বাড়ির চাকরের মতো কাজ করছে৷ পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র হত্যা করা হচ্ছে৷ মানুষের অধিকার কেড়ে নেওয়া হচ্ছে৷ আমাৈদের আন্দোলন করতে দিচ্ছে না৷ সেদিন সন্দেশখালিতে আমাদের কর্মীতে যে গুন্ডারা হত্যারা করল, তারপরের দিন সেখানে তৃণমূল নেতারা গিয়েছে, কিন্তু হত্যাকারীরা টিএমসির রক্ষাকর্তা৷ শাজাহান যে কর্মীদের খুন করেছে আমাদের সে আজ টিএমসির রক্ষাকর্তা৷ এই সরকার ক্ষমতায় থাকার অধিকারী নয়৷ মানুষ লোকসভায় তা বুঝিয়ে দিয়েছে৷’, বিস্ফোরক বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ৷
  • যতক্ষণ পর্যন্ত মমতা ব্যানার্জিকে ক্ষমতা থেকে না সরাবো ততক্ষণ বিজেপির আন্দোলন চলতে থাকবে, বিস্ফোরক বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা৷
  • এই অবস্থা নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিলেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷ হাজির রয়েছে, দিলীপ ঘোষ থেকে রাহুল সিনহা প্রমুখ৷
  • অসুস্থ হয়ে পড়লেন বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়কে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চলছে৷ ‘কেন টিয়ার গ্যাসের সেল ছোঁড়া হল বুঝতে পারছি না, আমি এবং রাজু একসঙ্গে ছিলাম প্রথমে, তাই আমরা আহত হয়েছি, অনেক বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না, এই সরকার অগণতান্ত্রিক, একে ফেলে দেওয়ার সময় এসে গিয়েছে’, বলে জানান সায়ন্তন বসু৷
  • প্রথমবার বিজেপির এই মিছিলকে ছত্রভঙ্গ করা সম্ভবপর হলেও ফের তারা একত্রিত হয় এবং বর্তমানে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিটে৷
  • পুলিশের উপর ইটবৃষ্টি, লাঠিচার্জ করে পুলিশ৷ সেই সঙ্গে টিয়ার গ্যাস এবং জলকামান দিয়ে এই মিছিলকে ছত্রভঙ্গের চেষ্টা পুলিশের৷ গ্রেফতার হয় কয়েকজন বিজেপি কর্মীও৷

বিজেপির লালবাজার অভিযানকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কাণ্ড সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউতে৷ নতুন করে সমস্যা শুরু হয়েছে বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিট ফিয়ার্স লেন ক্রসিংয়ে৷ প্রসঙ্গত, ভোটের ফল ঘোষণার পর থেকেই বাংলায় হিংসার পরিবেশ কায়েম হয়েছে, দাবি বিজেপির৷ শাসক তৃণমূলের হাতে নিহত হন একাধিক গেরুয়া দলের কর্মী সমর্থক৷ সন্দেশখালি যার সর্বশেষ উদাহরণ৷ প্রতিবাদে আজ লালবাজার অভিযানের ডাক দেয় রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব৷