স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: হালিশহরের তৃণমূল যুব নেতা সুদীপ্ত দাসের উপর রয়েছে পুলিশের কড়া নজর৷ গত বছর অক্টোবর মাসে কাঁচরাপাড়ার হিংসার ঘটনায় তাঁকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ৷ তারপর তিনি জামিনে ছাড়া পেয়ে যান৷ সেই থেকে তাঁকে ফের গ্রেফতারের জন্য তৈরি হচ্ছিল বীজপুর থানার পুলিশ৷

শুক্রবার বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের বাড়িতে বারাকপুর লোকসভার বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং-এর হাত ধরে তৃণমূল যুবনেতা সুদীপ্ত দাস পদ্মফুলে যোগদান করেন৷ তারপরই তাঁকে গ্রেফতার করতে তৎপর হয়ে ওঠে বীজপুর থানার পুলিশ৷ কিন্তু মুকুল রায়ের বাড়ির সামনে থেকে পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে গা ঢাকা দেন সুদীপ্ত৷ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় বীজপুর এলাকায়৷

অর্জুন সিংয়ের নেতৃত্বে কয়েকশো বিজেপি কর্মী বিজপুর থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। অর্জুন সিং বলেন, ‘‘পুলিশ এখন নির্লজ্জ দল দাস হয়ে কাজ করছে। তৃণমূল কংগ্রেসের পায়ের তলায় মাটি নেই। এখন পুলিশকে নিয়ে মিথ্যচার করছে। ওই দলে এখন গুন্ডা, দালাল চক্র ভরে গিয়েছে। তৃণমূল বাংলাকে কাশ্মীর এবং পাকিস্তান তৈরি করতে চাইছে। তাই ওরা জন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘পুরনো তৃণমূল কর্মীরা এখন সবাই বিজেপিতে আসছে। অটো চালক, গাড়ি চালক, দোকানদার, গরিব মানুষ সবাই এখন রাম গান গাইছে। তৃণমূল যতদিন যাবে তত জনগণের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে।’’