স্টাফ রিপোর্টার, মেদিনীপুর: জেলা পুলিশের উদ্যোগে কর্নগড় মন্দিরে বিয়ে সম্পন্ন হল দুই মাওবাদীর৷ তবে এই যুক্তি যদিও এখন গ্রহণযোগ্য নয়৷ কারণ তারা এখন প্রাক্তন মাওবাদী৷ বর্তমানে দুজনেই সরকারি হোমগার্ড৷ পাত্র পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনী সংলগ্ন বীরভানপুরের দিলীপ মাহাত (৩১)৷

তবে সূত্র বলছে, এক সময়ের জনসাধারণ কমিটির সদস্য ছিল দিলীপ৷ পাত্রী ঝাড়গ্রাম জেলার বেলপাহাড়ীর সুলেখা মাহাত (২৮)৷ মাও নেতা মদন মাহাত স্কোয়াডের সদস্য ছিল এই সুলেখা৷ দুজনেই ২০১৭-তে আত্মসমর্পণের পর হোমগার্ডের কাজ পায় সরকারি প্যাকেজে৷ তাই শুর হয় তাদের প্রশিক্ষণ৷ কিন্তু সেই প্রশিক্ষণ চলাকালীনই সম্পন্ন হয় তাদের প্রণয়৷ আর এদের প্রণয়ের কথা জানতে পেরে এগিয়ে আসেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া৷

নিজে উদ্যোগী হয়ে চার হাত এক করেন তিনি৷ বুধবার গোধূলী বেলায় পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শালবনী ব্লকের কর্ণগড়-এর মহামায়া মন্দিরে জেলা পুলিশের উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছিল বিয়ের৷ যেখানে সস্ত্রীক জেলা পুলিশ সুপারের পাশাপাশি আর্শীর্বাদ দিলেন জেলা পুলিশের কর্তাব্যক্তিরা৷ সঙ্গে হাজির ছিলেন দুই পক্ষের পরিবারের লোকেরাও৷ আর পুরো বিবাহটি সম্পন্ন করেন মন্দিরের পুরোহিত অরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তার এটি দ্বিতীয় মাও দম্পতির বিবাহ বলেই জানান তিনি৷