লখনউ: ফ্যাব ইন্ডিয়ার গোন ক্যামেরা কেলেঙ্কারি সামনে আসার পর এবার সজাগ হয়েছে পুলিশ। জায়গায় জায়গায় তল্লাশি চলছে। উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন স্টোরে জোরকদমে চালানো হচ্ছে তল্লাশি।
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির ট্রায়াল রুমে গোপন ক্যামেরা ধরা পড়ার পর তৎপর হয়েছে পুলিশ।
একেবারে গোপনে এই তল্লাসি চালানো হয়েছে। অবশ্য ট্রায়াল রুমে সিসিটিভি উত্তরপ্রদেশের কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি। যদিও বেশ কিছু শপিং মলে সিসিটিভি ক্যামেরা ট্রায়াল রুমের দিকে তাক করে থাকায় আপত্তির কথা জানিয়ে নোটিশ পাঠাচ্ছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।
ছুটি কাটাতে গিয়ে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি ঢুকেছিলেন গোয়ার ফ্যাব ইন্ডিয়ার স্টোরে। কিছু ট্রায়াল রুমে যাওয়ার সময় তাঁর নজরে আসে ওই ক্যামেরা। ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্তভার দিয়ে দেওয়া হয়েছে গোয়া পুলিসের ক্রাইম ব্রাঞ্চকে। উত্তর গোয়া পুলিশের পক্ষ থেকেও বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করা হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।