স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: মানসিক ভারসাম্যহীন মুমূর্ষু মহিলাকে উদ্ধার করল পুলিশ। কুমারগঞ্জ থানার গোবিন্দপুর এলাকায় গত কয়েকদিন ধরে রাজ্য সড়কের ধারে অসুস্থ অবস্থায় পড়েছিলেন মানসিক ভারসাম্যহীন এক মহিলা৷ বালুরঘাট-কুমারগঞ্জ সড়ক দিয়ে বহু যানবাহন ও মানুষজন তাঁকে দেখেও না দেখার ভান করে নিজেদের লক্ষ্যে চলে গিয়েছেন৷ কেউই বছর পঁয়ত্রিশের ওই মহিলার খোঁজ-খবর নেন না৷ শনিবার সকালে সিভিক ভলান্টিয়ার্স মারফৎ রাস্তার ধারে পড়ে থাকা অজ্ঞাত পরিচয় মহিলার খবর পৌঁছায় কুমারগঞ্জ থানায়৷

সকালেই থানার ওসি পার্থ ঝা’র নেতৃত্বে পুলিশ গোবিন্দপুর এলাকায় পৌঁছে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে থাকা ওই মহিলাকে উদ্ধার করে কুমারগঞ্জ ব্লক হাসপাতালে ভর্তি করে৷ শুধু তাই নয় সুস্থ হয়ে না ওঠা পর্যন্ত মহিলার দেখ ভালের দায়িত্বও পুলিশ নিয়েছে৷ হাসপাতালের বিএমওএইচ ডা: পুষ্পেন্দু ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, মহিলাটির অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। পুলিশের মানবিক প্রচেষ্টাতেই মানসিক ভারসাম্যহীন ভবঘুরে অসুস্থ ওই মহিলা চিকিৎসার সুযোগ পেয়েছেন৷ মহিলার শরীরের ডান দিক প্রায় অসার হয়ে রয়েছে৷ প্রস্রাবও বন্ধ৷ হাসপাতালে ভর্তি করানো মাত্রই তাঁর চিকিৎসা শুরু করে দেওয়া হয়েছে৷ সময় মতো হাসপাতালে না নিয়ে আসা হলে মহিলার অবস্থা আরও খারাপ হয়ে যেত বলেও বিএমওএইচ জানিয়েছেন৷

পুলিশ সুপার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, পুলিশ যে ২৪ঘণ্টা মানুষের সেবায় নিয়োজিত তা কুমারগঞ্জের ঘটনায় আবারও প্রমাণ হয়েছে৷ শান্তি-শৃঙ্খলা সুনিশ্চিত করার পাশাপাশি মুমূর্ষু ও অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়ে নজির সৃষ্টি করেছে৷ পাশাপাশি তিনি একথাও জানিয়েছেন যে এই ধরণের বিষয় গুলিও পুলিশের কাজের মধ্যেই পড়ে৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV