স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ভাটপাড়ায় অশান্তির ঘটনায় ২১টি তাজা বোমা সহ তিন কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করল পুলিশ৷ ধৃতদের নাম ভিকি সাউ, কুন্দন ফটিক ও সরোজ সাউ। তিনজনকেই কাঁকিনাড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ ধৃতরা ভাটপাড়ায় একাধিক বোমাবাজি ও হামলার ঘটনায় জড়িত বলে মনে করছে পুলিশ।

ভাটপাড়ায় লাগাতার দুষ্কৃতী তাণ্ডবে আতঙ্কিত স্থানীয় বাসিন্দারা। বুধবার স্থানীয় বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের বাড়ি লক্ষ্য করেও বোমাবাজি ও গুলি চালনোর ঘটনা ঘটে।সেদিন রাত ১০টার সময় অর্জুন সিংয়ের বাড়িতে ছিলেন ছেলে তথা বিধায়ক পবন সিং ও ভাইপো তথা ভাটপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যান সৌরভ সিং। সেসময়ই আচমকা গুলি-বোমাবাজি চলে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার পরই এলাকায় আসে পুলিশের বিশাল বাহিনী। ঘটনাস্থল সরজেমিনে খতিয়ে দেখেন পুলিশকর্মীরা। তবে এখনও পর্যন্ত এ ঘটনায় কেউ গ্রেফতার হয়নি।

এ ঘটনা প্রসঙ্গে অর্জুন সিং বলেন, ‘‘খুনের চক্রান্ত ছিল। তৃণমূল পুরোপুরি ভাবে জড়িত। রাজ্য সরকারের পরিকল্পিত চক্রান্ত’’। উল্লেখ্য, অর্জুন সিংয়ের বাড়ির সামনে রয়েছে সিআইএসএফের বাঙ্কার। সিআইএসএফের বাঙ্কার থাকা সত্ত্বেও কীভাবে গুলি-বোমাবাজি চলল, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

লোকসভা ভোটের পর থেকেই অশান্তির আগুনে জ্বলছে ভাটপাড়া-কাঁকিনাড়া এলাকা। এর আগেও ওই এলাকায় বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছে। বেশ কয়েকজনের মৃত্যুও হয়েছে। কিছুদিন আগে জগদ্দলে পুলিশের গুলিতে একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এরপর ভাটপাড়ার ৫নং রেলওয়ে সাইডিং ও বারুইপাড়া এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি চলে বলে অভিযোগ ওঠে। বোমার ঘায়ে জখম হন দেবদীপ মুখোপাধ্যায় নামের এক এএসআই।

বুধবার রাতের পর থেকেই এলাকায় শুরু হয়েছে পুলিশি অভিযান। সেই অভিযানেই এই তিন কুখ্যাত দুষ্কৃতী ধরা পড়েছে। ধৃতদের রাজনৈতিক যোগ খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷ শনিবার তাদের আদালতে তোলা হতে পারে৷