কলকাতা: অভিজ্ঞান মুখোপাধ্যায়ের পর এবার কৃষ্ণকান্ত বর্মন। করোনা আক্রান্ত হযে শনিবার মৃত্যু হল কলকাতা পুলিশের হেস্টিংস থানায় কর্মরত পুলিশকর্মী কৃষ্ণকান্ত বর্মনের। শুক্রবার করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় কলকাতা ট্রাফিক পুলিশের ইকুইপমেন্ট সেলের অফিসার ইন-চার্জ অভিজ্ঞান মুখোপাধ্যায়র। শনিবার মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চলে গেলেন কৃষ্ণকান্ত বর্মন।

কলকাতা পুলিশের একের পর এক কর্মী করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। এরই পাশাপাশি মারণ ভাইরাসের হানায় মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে। ১৪ জুলাই করোনা টেস্টের রেজাল্ট আসার পর জানা যায় হেস্টিংস থানায় কর্মরত পুলিশকর্মী কৃষ্ণকান্ত বর্মন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

কয়েকদিন হোম আইসোলেশনে থাকার পর শারীরিক অবস্থার অবনতিতে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। শনিবার হসপাতালেই তাঁর মৃত্যু হয়।

কলকাতা পুলিশের কমিশনার অনুজ শর্মা নিজে ট্যুইট করে কৃষ্ণকান্তবাবুর মৃত্যুর খবর জানান। করোনার বিরুদ্ধে বুক চিতিয়ে লড়ছেন আমাদের চিকিৎসক, নার্স থেকে শুরু করে অন্য স্বাস্থ্যকর্মীরা।

একইভাবে তাঁদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়ছেন পুলিশকর্মীরাও। করোনার সংক্রমণের আতঙ্ক উপেক্ষা করেই কর্তব্যে অবিচল পুলিশ বিভাগ। করোনায় আক্রান্ত হয়ে বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী এই মুহূর্তে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এদিকে, একবালপুর থানার তিন পুলিশকর্মীও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। চলতি সপ্তাহ থেকেই জ্বরে ভুগছিলেন ওই তিন পুলিশকর্মী। সেই কারণেই তিনজনের করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছিল।

প্রত্যেকেরই রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এদিকে, তিন সহকর্মী করোনা পজিটিভ হওয়ায় থানার বাকিদের মধ্যেও আতঙ্ক ছড়িয়েছে। এর আগেও একবালপুর থানায় আরও এক পুলিশকর্মী করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও