ছবি: কলকাতা পুলিশের ফেসবুক পেজ থেকে

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ঊষসী সেনগুপ্ত কান্ডের পর রাতের শহরে অতি সক্রিয় পুলিশ৷ বিশেষ করে বাইক বাহিনীকে শায়েস্তা করতে৷

লালবাজার সূত্রে খবর, রাতের কলকাতায় বিশৃঙ্খল আচরণ, মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানো, হেলমেটবিহীন বাইক চালানো এবং অন্যান্য ট্র্যাফিক বিধিভঙ্গের প্রতিরোধে নিয়মিত চলছে কলকাতা পুলিশের অভিযান৷ এই অভিযান চলছে সমস্ত থানা, ট্র্যাফিক বিভাগ এবং গোয়েন্দা বিভাগের সমন্বয়ে।

ট্রাফিক পুলিশের হিসেব অনুযায়ী, ট্রাফিক আইনের বিভিন্ন ধারাতে জরিমানা করা হয়েছে সব মিলিয়ে প্রায় ৫০০০ বাইকের ক্ষেত্রে৷ গত শনিবার রাতে শহরের প্রায় ৫০টি জায়গায় নাকা চেকিং পয়েন্ট বসিয়ে বিশেষ অভিযান চালানো হয়।

তাতে, প্রায় ৩০০০ বাইকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ২৭৮টি ক্ষেত্রে হেলমেট না থাকার কারণে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ট্রাফিক আইন ভেঙে একটি বাইকে দু’জনের বেশি চড়ার জন্য৬০৪টি মামলা হয়েছে৷ মদ্যপান করে বাইক চালানোর জন্য ১২১ জন চালককে আটক করা হয়৷ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে প্রায় ১০০টি বাইক। ট্রাফিক পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বুধবার থেকে এই বিশেষ অভিযান শুরু হয়েছে।

চলতি মাসের ১৭ তারিখ রাতে একটি ক্যাবে চেপে নিজের বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন তাঁরই এক সহকর্মী। এক্সাইড মোড় থেকে এলগিনের দিকে গাড়ি বাঁক নিতেই তাঁদের গাড়িকে অনুসরণ করা শুরু করে কয়েক জন বাইক আরোহী। তারপর আচমকাই তাঁদের গাড়ির উপর চড়াও হয় কয়েকজন যুবক। প্রথমে চালককে নামিয়ে টেনে হিঁচড়ে নামিয়ে মারধর করে তারা। বাধা দিলে কটূক্তি করে উষসীকেও।

পরে পুলিশ ঘটনায় সাত জনকে গ্রেফতার করতে পারে৷ ধৃতদের বয়স ২০-২৫ বছরের মধ্যে৷ তাদের আলিপুর আদালতে তোলা হলে প্রথমে ধৃতদের দু’দিনের পুলিশি হেফাজত হয়৷ দ্বিতীয়বার আদালতে তোলা হলে ধৃতরা শর্ত সাপেক্ষে জামিন পেয়ে যায়৷