কলকাতা: করোনা আক্রান্ত হয়ে বাড়ি থেকেই কাজ করছিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা৷ এবার তিনি করোনামুক্ত হয়ে ফিরলেন লালবাজার৷

বুধবার পুলিশ কমিশনার নিজেই টুইট করে জানালেন, কয়েক সপ্তাহ পর ফের অফিসে ফিরে এলাম৷ পাশাপাশি সুস্থ হয়ে শুভাকাঙ্খীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি৷ এছাড়া বেনিয়াপুকুর থানার ওসি অলক সরকারও সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন৷

লালবাজার জানিয়েছে, ‘অলক সরকার। ওসি বেনিয়াপুকুর। কোভিডে আক্রান্ত হয়ে ৩৪ দিন আগে ভর্তি হন এক বেসরকারি হাসপাতালে, চরম সঙ্কটাপন্ন অবস্থায়। প্রথমে ভেন্টিলেশন, তারপর আরও অবনতি হওয়ায় ‘একমো’ সাপোর্টে ছিলেন৷

প্রাথমিক স্তরে ডাক্তাররা ন্যূনতম আশার কথাও শোনাতে পারেননি৷ সহকর্মীদের চরম উৎকণ্ঠার মধ্যে রেখে এক একটা দিন কাটাচ্ছিলেন অলক৷ কিন্তু লড়ছিলেন প্রবল পরাক্রমে৷ কিছু লড়াই দিনের শেষে জিতিয়ে দেয় ‘লড়াইকেই’। অলক এখন জেতার রাস্তায়। মাসাধিক অবর্ণনীয় চড়াই-উতরাইয়ের পর মঙ্গলবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন৷ বাড়ি ফিরলেন৷

দ্রুত আরোগ্যের শুভকামনা এই অনমনীয় কোভিড-যোদ্ধাকে। সীমাহীন কৃতজ্ঞতা সেই ডাক্তারবাবুদের, যাঁরা অক্লান্ত পরিশ্রমে প্রায়-অসম্ভবকে সম্ভব করলেন৷’

কয়েক সপ্তাহ আগে কলকাতা পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা সামান্য অসুস্থ বোধ করছিলেন৷ এমনকি সামান্য জ্বর থাকায় করোনা পরীক্ষা করান৷ কিন্তু সেই রিপোর্ট পজিটিভ আসে৷ তারপরই তিনি হোম আইসোলেশনে চলে যান৷ ছিলেন আলাদা৷

তারপর থেকে কলকাতা পুলিশের সদর দফতর লালবাজারে আসেননি পুলিশ কমিশনার৷ তার আগে করোনা পরিস্থিতিতে তিনি কলকাতার এ প্রান্ত থেকে ওই প্রান্তে ঘুরে বেরিয়েছেন৷ একেবারে সামনের সারিতে থেকেই করোনার বিরুদ্ধে লড়েছেন৷ ফের সেই লড়াই শুরু করলেন৷

শুরু থেকেই কলকাতা পুলিশের অন্দরে হানা দেয় করোনা ভাইরাস৷ ক্রমে তা বাড়তে থাকে৷ সূত্রের খবর,এই পর্যন্ত দুই হাজারের বেশি পুলিশ অফিসার ও কর্মীরা আক্রন্ত হয়েছেন৷ তবে তাদের মধ্যে অধিকাংশই সুস্থ হয়ে উঠেছেন৷ কিন্তু কয়েক জনের প্রাণও কেড়ে নিয়েছে করোনা৷

দেশে এবং বিদেশের একাধিক সংবাদমাধ্যমে টানা দু'দশক ধরে কাজ করেছেন । বাংলাদেশ থেকে মুখোমুখি নবনীতা চৌধুরী I