সুভাষ বৈদ্য,কলকাতা: ব্যাংক-জালিয়াতি থেকে রক্ষা পেতে পরামর্শ কলকাতা পুলিশের ডিটেক্টিভ ডিপার্টমেন্টের Anti Bank Fraud বিভাগের৷ এই জালিয়াতির শিকার হওয়া থেকে বাঁচতে গেলে যা যা অবশ্যই মাথায় রাখা উচিত, সেই বিষয় সাধারণ মানুষকে সতর্ক করছে লালবাজার৷

কলকাতা পুলিশের সতর্কীকরণ দেখে নিন একনজরে-

ভুয়ো ফোন থেকে সাবধান থাকুন৷ আপনার কাছে কার্ড সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য – যেমন ATM card এর PIN,CVV No ইত্যাদি জিজ্ঞাসা করতে পারে প্রতারকরা৷ চাইতে পারে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড( OTP)৷ আপনার থেকে এই তথ্যগুলি নিয়ে টাকা হাতিয়ে নিতে পারে৷ মনে রাখবেন ব্যাংক কখনও আপনার আ্যাকাউন্টের তথ্য জানতে চাইবে না৷ এছাড়া ফোনে কার্ড বা আ্যাকাউন্ট সম্বন্ধীয় তথ্য দেওয়া থেকে বিরত থাকুন৷

আপনার কার্ড নং / CVV/PIN/OTP খুবই গোপন তথ্য৷ কখনওই কারোর সঙ্গেই এই ব্যক্তিগত তথ্য বিনিময় করবেন না৷ যদি ভুলেও কাউকে কার্ডের তথ্য দিয়ে থাকেন, তাহলে কার্ড অবিলম্বে ব্লক করুন এবং সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করুন৷ অনলাইনে বা বিভিন্ন মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে লেনদেনের ক্ষেত্রে আরও সচেতন হন৷

কার্ড ব্যবহার করার সময় নিচের বিষয়গুলো মাথায় রাখুন-

একমাত্র প্রামাণ্য ও নির্ভরযোগ্য বিপনিগুলিতেই কিছু কেনার জন্য কার্ড ব্যবহার করবেন৷ কার্ড সোয়াইপ করার পর পিন নম্বর দেওয়ার সময় সচেতন থাকবেন৷ মনে রাখবেন ,কার্ডের সমস্ত তথ্য কিন্তু কার্ডের পিছন দিকের ম্যাগনেটিক স্ট্রিপে জমা থাকে৷

এটিএম থেকে টাকা তোলার সময় যা যা মাথায় রাখা প্রয়োজন-

নিরাপত্তারক্ষী আছে , এমন এটিএম বুথই ব্যবহার করবেন সবসময়৷ আপনি যখন এটিএম মেশিন ব্যবহার করছেন তখন বুথের ভেতরে যেন অচেনা কোন ব্যক্তি উপস্থিত না থাকে৷ যতক্ষণ না টাকা তোলা শেষ হয়,বুথ ছেড়ে যাবেন না৷ যদি টাকার তোলার পদ্ধতির মাঝখানে এটিএম অচল হয়ে যায়,সঙ্গে সঙ্গেই বুথ ছেড়ে চলে যাবেন না৷ এটিএমে টাকা তোলার সময় কখনও অচেনা লোকের থেকে সাহায্য চাইবেন না৷
এটিএম বুথের ভিতরে অচেনা কাউকে কখনও আপনার এটিএম কার্ড বা পিন দেবেন না৷

মিথ্যে বিজ্ঞাপন থেকে সতর্ক থাকুন-

আপনি হয়তো প্রায়ই পার্সোনাল লোন সম্পর্কিত বিজ্ঞাপন দেখতে পান৷ আপনার কাছে আপনার ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের তথ্য, সঙ্গে ভোটার আইডি/আধার/প্যান/ ফটোগ্রাফের অরিজিনাল বা অ্যাটেস্টেড জেরক্স কপি চাওয়া হতে পারে৷ লোন অনুমোদন করার জন্য প্রতারকরা আপনাকে নির্দিষ্ট কোন ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দিতে বলতে পারে৷

এছাড়া আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মনে রাখবেন—

যে কোনও লোনের জন্য সবসময় সরাসরি ব্যাঙ্কের দ্বারস্থ হবেন৷ দালালদের থেকে দূরে থাকুন৷ পার্সোনাল লোন সম্পর্কিত কোন ফোন অথবা বিজ্ঞাপনে সাড়া দেবেন না৷ অচেনা লোককে কখনও সই করা বাতিল চেক দেবেন না৷ লোনের টাকা পাওয়ার জন্য প্রতারকদের বলা নির্দিষ্ট কোন অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দেবেন না৷ চেকে কিছু লেখার সময় সর্বদাই নিজের কলম ব্যবহার করবেন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I