নয়াদিল্লি: আঙুলের চোটে বিশ্বকাপ অভিযান শেষ হয়ে গিয়েছে শিখর ধাওয়ানের৷ বুধবারই বিসিসিআই-এর তরফে বিশ্বকাপ থেকে ধাওয়ানের ছিটকে যাওয়ার বিষয়টি সরকারীভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়৷ বৃহস্পতিবার ধাওয়ানের সু্স্থতা কামনায় টুইটারে ভারতীয় ওপেনারকে শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷

ধাওয়ানের পরিবর্ত হিসেবে বুধবারই ঋষভ পন্তের নাম আইসিসি-র কাছে পাঠিয়েছে বিসিসিআই৷ ভারতীয় বোর্ডের এই আবেদন মঞ্জুর করেছে বিশ্বক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা৷ অর্থাৎ শনিবার আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলে নির্বাচনের জন্য বিবেচিত হতে পারেন দিল্লির এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷

বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়ে টুইটারে আবেগঘন বার্তাও পোস্ট করেন ধাওয়ান লেখেন, ‘এটা ঘোষণা করতে নিজেকে আবেগতাড়িত মনে হচ্ছে যে, আমি আর বিশ্বকাপ অভিযানের শরিক থাকব না৷ আমি ভীষণভাবে বিশ্বকাপে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে চেয়েছিলাম৷ কিন্তু এখন আমাকে ফিরে যেতে হবে এবং সুস্থ হয়ে পরবর্তী পর্যায়ের জন্য প্রস্তুত হতে হবে৷ ছেলেরা বিশ্বকাপে দারুণ খেলছে৷ আমি নিশ্চিত ওরা আরও ভালো খেলবে এবং বিশ্বকাপ জিতবে৷ আমার সতীর্থ, ক্রিকেট অনুরাগী ও গোটা দেশের কাছ থেকে যে সমর্থন পেয়েছি তার জন্য আমি কৃতার্থ৷ জয় হিন্দ৷’

ধাওয়ানকে রি-টুইট করে প্রধানমন্ত্রী লেখেন, ‘ডিয়ার ধাওয়ান৷ কোনও সন্দেহ নেই বাইশ গজ তোমাকে মিস করবে৷ কিন্তু আমি আশা করব, যত শীঘ্র সম্ভব তুমি সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরবে এবং পারর্ফম করে দেশকে জেতাবে৷’

কেনিংটন ওভালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করার পথে প্যাট কামিন্সের বলে বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলে চোট পান ধাওয়ান৷ কিন্তু হাতের তীব্র যন্ত্রণা নিয়েও দুরন্ত সেঞ্চুরি করেছিলেন বাঁ-হাতি ওপেনার৷ ১০৯ বলে ১১৭ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন কোহলির দলের ‘গব্বর’৷ চিকিৎসকরা তাঁকে অন্তত ২১ দিন বিশ্রাম দেওয়ার পরামর্শ দেন৷ কিন্তু স্ক্যানের রিপোর্টে বছর তেত্রিশের এই বাঁ-হাতি ওপেনারের আঙুলে হেয়ারলাইন ফ্র্যাকচার ধরা পড়ে। ফলে আঙুলে প্লাস্টার করা হয়৷ ধাওয়ানকে বিশ্বকাপের শেষ দিকে পাওয়ার আশা থাকলেও ‘কভার’ হিসেবে পন্তকে তড়িঘড়ি ইংল্যান্ডে নিয়ে যাওয়া হয়৷ তবে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায় জুলাইয়ের মাঝামাঝি পর্যন্ত ধাওয়ানের মাঠে ফেরার সম্ভাবনা নেই৷ সুতরাং বুধবারই বাঁ-হাতি ওপেনারের পরিবর্ত ঘোষণা করে বোর্ড৷

ম্যাঞ্চেস্টারে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ধাওয়ানকে ছাড়ায় ৮৯ রানে জেতে টিম ইন্ডিয়া৷ ধাওয়ানের পরিবর্তে পাকিস্তান ম্যাচে খেলেন অল-রাউন্ডার বিজয়শংকর৷ বিশ্বকাপের প্রথম বলেই উইকেট নিয়ে নজিরও গড়েন বিরাটের দলের এই তামিল অল-রাউন্ডার৷ ধাওয়ান না-থাকায় পাকিস্তান ম্যাচে রোহিত শর্মার সঙ্গে ভারতীয় ইনিংসের সূচনা করেছিলেন লোকেশ রাহুল৷ তবে ধাওয়ানের না-থাকাটা নিঃসন্দেহ ভারতের কাছে বড় ক্ষতি৷ কারণ আইসিসি টুর্নামেন্টে দারুণ পারফর্মার দিল্লির এই বাঁ-হাতি৷ আইসিসি টুর্নামেন্টে ছ’টি সেঞ্চুরি রয়েছে ধাওয়ানের৷ এর মধ্যে তিনটি বিশ্বকাপ ও তিনটি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে৷