নিউজ ডেস্ক: আগামী ৩০ মে প্রধানমন্ত্রী পদে পুনরায় শপথ নেবেন নরেন্দ্র মোদী। তাই ফের প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন হতে প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিলেন তিনি। শুক্রবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ তাঁর ইস্তফাপত্র গ্রহণও করেছেন।

২৩ মে মহাবিজয়ের পর প্রত্যেকেরই নজর এখন প্রধানমন্ত্রী পদে নরেন্দ্র মোদীর মহাঅভিষেকের দিকে। ৩০ মে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদী। তাই তাঁর আগে প্রধানমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিতে এদিন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করেন মোদী। নিজের ইস্তফাপত্রটি তুলে দেন তাঁর হাতে। রাষ্ট্রপতি তাঁর ইস্তফাপত্রটি গ্রহণ করেছেন সানন্দে।

জানা গিয়েছে, এদিন ইস্তফাপত্র তুলে দেওয়ার পর রামনাথ কোবিন্দ নরেন্দ্র মোদী ও মন্ত্রীসভার সকলকেই অনুরোধ করেছেন নতুন সরকার গঠন না হওয়া পর্যন্ত এই মন্ত্রীসভা অব্যাহত রাখতে। এদিন মোদী এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের জন্য একটি নৈশভোজের আয়োজন করেছেন রাষ্ট্রপতি বলে জানা গিয়েছে।

২০১৪ সালে জয়ের পর ২৬ মে প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছিলেন মোদী। আর এবার শপথ নিতে চলেছেন ৩০ মে। ২০১৪ সালে জয়ের পর প্রথম মায়ের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন মোদী। দেশ শাসনের কাজ শুরুর আগে মায়ের সঙ্গে দেখা করে আশীর্বাদ নিয়েছিলেন। এবারও শপথ গ্রহণের আগে মায়ের সঙ্গে দেখা করে আশীর্বাদ নিতে গুজরাত যাবেন তিনি।

২৮ মে নিজের লোকসভা কেন্দ্র বারানসী যাবেন মোদী। সেখানকার মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে চান তিনি। বারানসীর পর গুজরাতের মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যাবেন। গুজরাতের মানুষ ফের তাঁকে ২৬ টি আসনে জয়ী করেছেন তাই গুজরাতবাসীর সাথে দেখা করে ধন্যবাদ জানাতে চান তিনি। এই সফরে বেড়িয়েই গুজরাতের গান্ধীনগরে নিজের বাড়ি গিয়ে মা হীরাবেন মোদীর সঙ্গে দেখা করে আসবেন তিনি। গুজরাত ভোটের সময় গুজরাত গিয়েছিলেন। মায়ের সঙ্গে দেখা করে একদিন সেখানে থেকেও এসেছেন তিনি।