৪ কিলোমিটার মেট্রো পথের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

বাংলায় যতদিন সিন্ডিকেট, তোলাবাজিরাজ না সরছে, ততদিন এখানে উন্নয়ন সম্ভব নয়

কেন্দ্রের টাকা খেয়েছে তৃণমূল সরকার

রাজ্যে ফুড প্রসেসিং কারখানা তৈরি হওয়া দরকার

পাটজাত দ্রব্যের বিপননযোগ্যতা বাড়িয়েছে কেন্দ্র

বাংলার পাটকলগুলি দেশের গর্ব ছিল, এই সরকার সব শেষ করে দিচ্ছে

এই সরকারকে মানুষ ক্ষমা করবে না

আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প থেকে বঞ্চিত বাংলা

পরিশোধিত পানীয় জল থেকে বঞ্চিত বাংলা

মা মাটি মানুষের সরকার গোটা রাজ্যকে পিছিয়ে দিয়েছে

সোনার বাংলা গড়ে তুলবে কেন্দ্র

কেন্দ্র সরকার কৃষক ও গরীবদের টাকা সরাসরি তাঁদের অ্যাকাউন্টে দেয়, তৃণমূল তা নিজের পকেটে পোরে

উন্নয়নের বদলে তোষণের রাজনীতি চলছে

তোলাবাজিমুক্ত হবে রাজ্য

ভোট ব্যাংকের রাজনীতি বাংলায় দুর্গাপুজো করতে দেয় না, বিসর্জনে বাধা দেয়

রাজ্য ফ্রেট করিডরের সুবিধা পাবে, লাভ হবে রাজ্যের

রাজ্যে উন্নয়ন আনাই লক্ষ্য কেন্দ্রের

রাজ্যে উন্নয়ন আসা এখন সময়ের অপেক্ষা

রাজ্যে পরিবর্তন আসতে চলেছে, বাংলার মানুষ নিজেদের মনস্থির করে ফেলেছেন : মোদী

বাংলায় বক্তব্য রাখতে শুরু করলেন মোদী

বক্তব্য রাখছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ

চুঁচুড়ার ডানলপের সভায় প্রধানমন্ত্রী

এই অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, পীযূষ গোয়াল, বাবুল সুপ্রিয়, দেবশ্রী চৌধুরী উপস্থিত

চুঁচুড়ার উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

কলকাতায় পা রাখলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধনে কলকাতা এলেন তিনি। তাঁকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যসচিব ও ডিজি। ছিলেন বিজেপিতে যোগ দেওয়া অভিনেতা হিরণ ও তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আসা বৈশালি ডালমিয়া।

এই প্রকল্পের সুবিধা হচ্ছে, ৫০ হাজার যাত্রী দৈনিক এই মেট্রো প্রকল্পের মাধ্যমে উপকৃত হবেন। দক্ষিনেশ্বর থেকে নিউ গড়িয়া অর্থাৎ কবি সুভাষ ৬২ মিনিটে পৌঁছে যাওয়া যাবে। সড়ক পথে এই রাস্তা যেতে সময় লাগে ১৫০ মিনিট। এসপ্লানেডে থেকে দক্ষিনেশ্বর যেতে সময় লাগবে মাত্র ৩২ মিনিট। আর এই যাত্রা হবে দূষণমুক্ত।

এর ফলে বেলুড়, বালি, উত্তরপাড়া, ডানকুনি, ব্যারাকপুর,কামারহাটি, ডানলপের মতো জায়গায় বসবাসকারী মানুষদের যাতায়াত সুবিধাজনক হবে। শুধু এটাই নয় এ ছাড়াও পূর্ব রেলের হাওড়া-বর্ধমান মেইন লাইনের যাত্রীরা কাটোয়া-হাওড়া-তারকেশ্বর শাখা এবং ডানকুনি-শিয়ালদা লাইনের যাত্রীরা সহজেই মেট্রো রেলের সুবিধা পাবেন।

সম্প্রসারিত রুটে যাত্রী পরিষেবা শুরু হবে মঙ্গলবার থেকে। মেট্রো সূত্রে খবর, কাজের দিনে দক্ষিণেশ্বর থেকে নিউ গড়িয়া পর্যন্ত চলবে ১৫৮টি ট্রেন। ছুটির দিনে ১৫৬টি ট্রেন চলবে। অফিসটাইমে ৭ মিনিট অন্তর চলবে মেট্রো।

নোয়াপাড়া-দক্ষিণেশ্বর রুটে শেষ মেট্রো মিলবে রাত সাড়ে ৯টায়। যাত্রাপথের কিলোমিটার বাড়লেও মেট্রোর সর্বোচ্চ ভাড়া থাকছে সেই ২৫ টাকাই থাকছে । সপ্তাহের কাজের দিনে দক্ষিণেশ্বের থেকে নিউ গড়িয়ার মধ্যে আপডাউনে ৭৯ জোড়া ট্রেন চলবে।

রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন এই ঘোষণা বিজেপি-র পালে হওয়া টানবে বলেই রাজনৈতিক মহলের অভিমত। এই প্রকল্পের মাধ্যমে কালীঘাটে মায়ের দর্শন করে দক্ষিণেশ্বরের ভবতারিণী দর্শনের সুবিধা খুলে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।রেল যোগাযোগ ব্যবস্থার সম্প্রসারণ ঘটিয়ে পশ্চিমবঙ্গে নতুন দিগন্তরে উন্মোচন করছেন প্রধানমন্ত্রী।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.