নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কানাডার প্রাইম মিনিস্টার জাস্টিন ট্রুডোর ভারত সফর নিয়ে অবশেষ ট্যুইট করলেন৷ বৃহস্পতিবার নমো লেখেন, ডাস্টিন ট্রুডো এবং তাঁর পরিবারের ভারত সফর ভালো হয়েছে বলে আশা করেন তিনি৷ সেই সঙ্গে ২০১৫সালের একটি পুরনো কানাডা সফরের ছবিও শেয়ার করেছেন যেখানে ট্রুডো এবং তাঁর কন্যার সঙ্গে রয়েছেন স্বয়ং মোদী৷

প্রসঙ্গত, নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণেই সাত দিনের জন্য ভারত সফরে আসেন ট্রুডো৷ ভারতের বহু শহরেই সপরিবারে ভ্রমণ করেন তিনি৷ বুধবার ট্রুডো শিখদের পবিত্র ধর্মীয় স্থান অমৃতসরে যান৷ স্বর্ণমন্দিরে তাঁকে স্বাগত জানাতে শিরোমণি অকালি দলের প্রধান সুখবীর সিং বাদল৷ যদিও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং স্বর্ণমন্দিরে উপস্থিত ছিলেন না বলে জানা যায়৷ তবে এও জানা যায়, বুধবার অমৃতসরের একটি হোটেলে ৪০ মিনিটের বৈঠক করেন অমরিন্দর সিং এবং ট্রুডো৷ সংবাদ সূত্রের খবর অনুযায়ী, এই বৈঠকে ‘‌‌‌‌‌খালিস্তান’ আন্দোলনের ইস্যু উঠলে ট্রুডো জানান, কানাডা ভারত থেকে শুরু করে অন্য কোনও দেশের বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন সমর্থন করেননি তিনি৷

পড়ুন: প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী’র সঙ্গে ছবিতে কুখ্যাত জঙ্গি

ট্রুডোর ভারতে পা রাখার পর থেকেই রাজনৈতিক মহল থেকে সংবাদ মাধ্যম, সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকবারই এই প্রশ্ন উঠেছে যে, কেন কানাডার প্রাইম মিনিস্টারের অভ্যর্ত্থনা করতে মোদী উপস্থিত থাকলেন না৷ যেখানে প্রতিবার মোদী নিজে বিমানবন্দরে (প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বা ইজরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সময় ছিলেন) উপস্থিত থাকেন৷ শুধু তাই নয়, ট্রুডোর ভারত সফর নিয়ে এতোদিন তিনি কোনও রকম বক্তব্য পেশ বা ট্যুইট করেননি৷ গত শনিবার ট্রুডো এসে পৌঁছলেও আগামিকাল, শুক্রবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে প্রথম দেখা হবে কানাডার প্রাইম মিনিস্টার জাস্টিন ট্রুডোর৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।