নয়াদিল্লি: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জৈর বলসোনারো। বুধাবার তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করে বন্ধুর উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়েছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

বুধবার নরেন্দ্র মোদী পর্তুগীজ এবং ইংরেজিতে ট্যুইট করে জানিয়েছেন, “আমার বন্ধু প্রেসিডেন্ট জৈর বলসোনারোর দ্রুত সুস্থতার জন্য আমার প্রার্থনা এবং শুভকামনা”।

ব্রাজিলের রাজধানী ব্রাসিলিয়ায় সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে মাস্ক পরে বলসোনারো মঙ্গলবার জানিয়েছেন করোনা পরীক্ষায় রিপোর্ট পজিটিভ হয়েছে। বলসোনারো জানিয়েছেন, “আমি ভালো আছি, স্বাভাবিক। আমি এখানে হেঁটে দেখতে চাই তবে ডাক্তারি বিধিনিষেধের জন্য তা সম্ভব নয়”।

একাধিকবার, বলসোনারোকে পাবলিক ইভেন্টে সমর্থকদের সঙ্গে হাতমেলাতে এবং ভিড়ে মিশতে দেখা গিয়েছে কোনও সাবধানতা ছাড়াই। তিনি জানিয়েছিলেন, ঐতিহাসিকভাবে একজন অ্যাথলিটকে কোনওদিন ভাইরাস হামলা করবে না, শুধুমাত্র ‘ছোট্ট ফ্লু’ ছাড়া আর কিছুই হবে না।

তিনি বারবার বলেছেন, মোট জনসংখ্যার ৭০ শতাংশকে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়া থেকে আটকানোর কোনও রাস্তা নেই। স্থানীয় কর্তৃপক্ষের তরফে অর্থনৈতিক কার্যকলাপ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তে সমস্যা আরও বাড়বে বলেও জানান এবং স্বাভাবিক সবকিছু চলতে দেওয়া হয়।

বিশ্বের মধ্যে ষষ্ঠতম জনবহুল দেশ ব্রাজিল যেখানে ২১০ মিলিয়ন মানুষের বসবাস, বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম হটস্পট এবং দ্বিতীয় করোনা বিধ্বস্ত দেশ ব্রাজিল।

জানা গিয়েছে, সোমবার প্রেসিডেন্ট জৈর বলসোনারো করোনা পরীক্ষা করা হয় এবং বলা হয় যে মঙ্গলবার রিপোর্ট পাওয়া যাবে। তবে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম আগেই জানিয়েছিল, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জৈর বলসোনারোর মধ্যে করোনা উপসর্গ ছিল। উনি জ্বরে ভুগছিলেন।

এও জানা গিয়েছে, করোনা পরীক্ষার পরে হাসপাতাল থেকে ফেরার সময় গাড়ি থেকে নেমে সরকারের সপক্ষে একটি ইউটিউব চ্যানেলের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন, “আমি হাসপাতাল থেকে ফিরছি কিন্তু সব ঠিক আছে”।

এই প্রসঙ্গে তিনি আরও জানা, “আমার ফুসফুসের স্ক্যান করা হয়েছে যেখানে সব পরিষ্কার বলেই জানা গিয়েছে”। মঙ্গলবার দুপুর ৩টে অবধি প্রেসিডেন্টের পাবলিক এজেণ্ডা লিস্ট খালি ছিল কারণ তিনি রিপোর্টের অপেক্ষায় ছিলেন।

তবে জানা গিয়েছে, একাধিকবার বলসোনারোকে করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতিতে নিয়ম ভাঙতে দেখা গিয়েছে। জুনের শেষের দিকে জাজের এমন কথারও অমান্য করেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সোশ্যাল ডিসট্যানসিংয়ের নিয়মও তিনি সঠিকভাবে মেনে চলেননি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ