গান্ধীনগর: আজ সোমবার জোড়া মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ আমেদাবাদ মেট্রো রেল প্রকল্পের দ্বিতীয় ফেজ এবং সুরাট মেট্রো রেলে প্রকল্পের ভূমি পুজো হবে আজ৷

এদিন সকালে টুইট করে নমো বলেন, ‘‘গুজরাতের দুই প্রধান শহরের কাছে আজ এক উল্লেখযোগ্য দিন৷ সকাল সাড়ে দশটায় সুরাট মেট্রো এবং আমেদাবাদ মেট্রোর দ্বিতীয় ফেজের ভুমি পুজো হবে আজ৷’’ জানা গিয়েছে এই ভুমি পুজো অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী, গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি এবং রাজ্যপাল আচার্য দেবব্রত৷

আমেদাবাদ মেট্রো প্রকল্পের দ্বিতীয় ফেজে কাজ হবে ২৮.২৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পথে৷ থাকবে দুটি করিডর৷ প্রথম করিডরটি মোতেরা স্টেডিয়াম থেকে মহত্মা মন্দির পর্যন্ত ২২.৮ কিলোমিটার পথে বিস্তৃত৷ দ্বিতীয় করিডরটি শুরু হচ্ছে জিএনএলইউ থেকে৷ এটি শেষ হবে জিআইএফটি সিটিতে৷ এটি ৫.৪ কিলোমিটার দীর্ঘ৷

অন্যদিকে সুরাত মেট্রো রেল প্রজেক্টের কাজ হবে ৪০.৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পথ জুড়ে৷ এখানেও থাকছে দুটি করিডর৷ প্রথম করিডরটি ২১.৬১ কিলোমিটার দীর্ঘ৷ সারথনা থেকে ড্রিম সিটি পর্যন্ত বিস্তৃত হবে এই করিডর৷ দ্বিতীয় করিডরটি ভীসান থেকে সারোলি পর্যন্ত ১৮.৭৪ কিলোমিটার বিস্তৃত৷ এই প্রকল্পে খরচ পড়বে ১২,০২০ কোটি টাকা৷

শনিবার প্রধানমন্ত্রীর দফতর (পিএমও) থেকে বলা হয়, ‘‘গুজরাতের এই দুই মেট্রো প্রকল্প পরিবেশ বান্ধব পথে দ্রুত যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে তুলবে৷ এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন অমিত শাহ, হরদীপ সিং পুরী, গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি এবং রাজ্যপাল আচার্য দেবব্রত৷ সকাল সাড়ে দশটায় ভিডিয়ো কনফারেন্সিং-এ মাধ্যমে এই অনুষ্ঠান পালন করা হবে৷’’

আমেদাবাদে এই দুই মেট্রো প্রকল্প রাজ্যের পরিবহণ ব্যবস্থায় ল্যান্ডমার্ক হতে চলেছে৷ এর ফলে অনেক কম সময়ে সফর করতে পারবেন যাত্রীরা৷ সর্বোপরী এই পরিষেবা হবে পরিবেশ বান্ধব৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।