তিরুঅনন্তপুরম: শুক্রবার ভিভিআইপি অতিথি দর্শন রয়েছে কেরলের ভাগ্যে৷ একদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও অন্যদিকে, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ এই দুজনেই শুক্রবার কেরল দর্শন করতে যাচ্ছেন বলে খবর৷ লোকসভা নির্বাচনের পরে এই প্রথম কেরল সফরে প্রধানমন্ত্রী৷ অন্যদিকে পৃথক সফরে কেরলেই যাচ্ছেন কংগ্রেস সভাপতি৷

শুক্রবার রাতে কোচিতে পৌঁছনোর কথা প্রধানমন্ত্রীর৷ সেখানে ত্রিশূর জেলায় গুরুবায়ুড় শ্রী কৃষ্ণ মন্দিরে পুজো দেবেন তিনি৷ কথিত রয়েছে এই শ্রীকৃষ্ণ মন্দির ৫০০০ বছরের পুরোনো৷ তবে মূল মন্দিরের আধুনিক কাঠামো তৈরি হয়েছে ১৬৩৮ সালে৷ মন্দিরে হিন্দু ব্যতীত অন্য কোনও ধর্মের মানুষের প্রবেশ কঠোর ভাবে নিষিদ্ধ৷

আরও পড়ুন : নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত, জগনমোহনের মন্ত্রিসভায় পাঁচজন উপমুখ্যমন্ত্রী

শুক্রবারই কেরলে পৌঁছচ্ছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ নিজের জয়ী কেন্দ্র ওয়ানাড়ে পৌঁছবেন তিনি৷ দুপুর দেড়টা নাগাদ কোঝিকোড়ে বিমানবন্দরে পা রেখে সেখান থেকে রোড শোতে অংশ নেওয়ার কথা তাঁর৷ সেখানকার মানুষকে তাঁকে জেতানোর জন্য ধন্যবাদ জানাবেন তিনি৷ স্থানীয় কংগ্রেস কর্মীরা অংশ নেবেন এই রোড শোতে৷ আগামী তিন দিন ওয়ানাড়ে থাকবেন রাহুল বলে কংগ্রেস সূত্রে খবর৷

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শুক্রবার রাতে থাকবেন এর্ণাকুলাম গেষ্ট হাউসে৷ সেখান থেকে শনিবার ভোরে নৌসেনার হেলিকপ্টারে পৌঁছবেন মন্দিরে৷ পুজো দিয়ে বিজেপির নেতৃত্বে আয়োজিত অভিনন্দন সভায় বক্তব্য রাখবেন মোদী৷ এই সভা অনুষ্ঠিত হবে শ্রীকৃষ্ণ হাইস্কুল মাঠে৷ বেলা ১১টায় এই সভায় উপস্থিত হবেন তিনি৷ বেলা ২টো নাগাদ কোচি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিশেষ বিমানে দিল্লি পৌঁছবেন প্রধানমন্ত্রী৷

গুরুবায়ুড় দেবাসম বোর্ডের চেয়ারম্যান কে বি মোহনদাস জানান, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজেই এই প্রাচীন মন্দিরে পুজো দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন৷ তুলাভরনম অনুষ্ঠান করারও ইচ্ছা প্রকাশ করেন তিনি৷ তাঁর ইচ্ছাকে সম্মান জানিয়েই এই অনুষ্ঠান হবে৷ এই তুলাভরনম অনুষ্ঠানে বিশাল দাঁড়িপাল্লার একদিকে মোদী বসবেন৷ তাঁর দেহের ওজনের সমান পদ্মফুল ওজন করা হবে৷ সেই পরিমাণ পদ্মফুল অর্পণ করা হবে বিগ্রহের পায়ে৷

আরও পড়ুন : মোদীর ডাকে নীতি আয়োগের বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন না মমতা

বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ভগবান কৃষ্ণের ভক্ত প্রধানমন্ত্রী মোদী৷ লোকসভা নির্বাচনে দলের বিপুল জয়কে উৎসর্গ করতে চান সেই কৃষ্ণের পায়েই৷ তাই এই প্রাচীন কৃষ্ণ মন্দিরে তাঁর পুজো দেওয়ার ইচ্ছা৷ প্রায় ঘণ্টা খানেক তিনি ওই মন্দিরে থাকবেন বলে জানা গিয়েছে৷ মন্দির কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে প্রায় ১১২ কিলো পদ্মফুলের বরাত দেওয়া হয়েছে৷ তামিল নাড়ুর নাগরকোলি থেকে এই ফুল নিয়ে যাওয়া হবে৷

মোদীর মন্দির দর্শনকে কেন্দ্র করে সাধারণ দর্শনার্থীর জন্য মন্দিরের গেট বন্ধ থাকবে সকাল নটা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত৷ মোদীর সফরকে কেন্দ্র করে ত্রিশূর জেলা জুড়ে নিরাপত্তার কড়াকড়ি করা হয়েছে৷ উল্লেখ্য এই মন্দিরে ২০০৮ সালেও একবার এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী৷ সেসময় তিনি গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী পদে আসীন ছিলেন৷ তখনও তুলাভরনম অনুষ্ঠানে পদ্ম দিয়ে বিগ্রহকে সম্মান জানিয়েছিলেন মোদী৷