নয়াদিল্লি : স্বামী বিবেকানন্দের জন্মতিথি ১২ই জানুয়ারিতে ন্যাশনাল ইয়ুথ পার্লামেন্টে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সকাল দশটায় তাঁর বক্তব্য রাখার কথা রয়েছে। শনিবার ট্যুইট করে এই তথ্য জানায় কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রক। আরেকটি ট্যুইটে শিক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী মোদীর বক্তব্য সরাসরি দেখা বা শোনা যাবে শিক্ষা মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়ালের ট্যুইটার ও ফেসবুক পেজে।

এর আগে, করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে পালন করা হয় ১৬ তম প্রবাসী ভারতীয় দিবস কনভেনশন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে এই অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়। শনিবার সকাল ১০টায় এই অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন সুরিনামের প্রেসিডেন্ট চন্দ্রিকা পেরসাদ সান্তোখি। এই অনুষ্ঠানে তিনিও বক্তব্য রাখেন।

প্রবাসী ভারতীয় দিবস কনভেনশনের বিদায়ী বক্তব্য বা ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ২০২১ সালের প্রবাসী ভারতীয় দিবস কনভেনশনের থিম আত্মনির্ভর ভারতের প্রতি অবদান বা “Contributing to Aatmanirbhar Bharat”। যুব সম্প্রদায়ের জন্য অনলাইনে ভারত কো জানিয়ে কুইজ্যের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয় এদিন।

প্রতি দুবছর অন্তর প্রবাসী ভারতীয় দিবস পালন করা হয়। প্রবাসী ভারতীয়দের প্রতি বার্তা দিয়ে দেশের সঙ্গে তাঁদের সম্পর্ক আরও মজবুত করার লক্ষ্যেই এই অনুষ্ঠানের আয়োজন। এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী অধিবেশনের পরে দুটি প্লেনারি সেশন পালন করা হবে বলে জানা গিয়েছে। আত্মনির্ভর ভারতে প্রবাসী ভারতীয়দের ভূমিকার বিষয়ে প্রথম পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রীর ভাষণ থাকবে। স্বাস্থ্য, অর্থনীতি, সামাজিক ও আন্তর্জাতিক সম্পর্কের প্রেক্ষাপট নিয়ে ও করোনা পরিস্থিতির প্রভাবের কথা উল্লেখ করে দ্বিতীয় প্লেনারীতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং বিদেশমন্ত্রী প্রতিভাষণ দেবেন বলে জানা গিয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।