নয়াদিল্লি: মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে উপহার দেওয়ার জন্য জাতীয় পতাকায় স্বাক্ষর করে বিতর্কে জড়ালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷

মার্কিন প্রেসিডেন্টকে দেওয়ার জন্য প্রখ্যাত শেফ বিকাশ খান্নার হাতে ওই পতাকা তুলে দেওয়া হয়েছিল৷ নিউইয়র্কে বিভিন্ন কোম্পানির সিইও-দের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নৈশভোজের খাদ্য প্রস্তুত করেছিলেন খান্না৷ওই পতাকায় মোদীর স্বাক্ষর ছিল বলে জানিয়েছেন তিনি৷

ওই পতাকা মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে দেওয়ার কথা ছিল খান্নার৷কিন্তু জানা গিয়েছে,  ভারতের বিদেশমন্ত্রক ওই পতাকা খান্নার কাছ থেকে ফেরত নিয়েছে। জাতীয় পতাকার বিধিনিয়ম অনুসারে তা ফেরত নেওয়া হয়েছে। সংবিধান অনুসারে, জাতীয় পতাকায় কিছু লেখা যায় না। কিন্তু খান্না যে পতাকা দেখিয়েছিলেন তাতে প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর ছিল৷

উল্লেখ্য, নৈশভোজের জন্য প্রায় ২৬টি পদ রেঁধেছিলেন বিকাশ খান্না৷ তাঁর দাবি, প্রধানমন্ত্রী এতে খুব খুশি হয়েছিলেন৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.