নয়াদিল্লি: বাদল অধিবেশন শুরুর আগে সংসদে প্রধানমন্ত্রী অভিবাদন জানালেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও সহসভাপতি রাহুল গান্ধীকে৷ সংসদের কার্যসম্পাদন শুরুর আগে সৌজন্যবশত কর জোড়ে অভিবাদন জানান বিরোধী দলের নেতা নেত্রীদেরও৷

সোমবার থেকে সংসদে শুরু হল বাদল অধিবেশন৷ এদিন নির্ধারিত সময়ের পাঁচ মিনিট আগে সংসদে পৌঁছে যান প্রধানমন্ত্রী৷ নিজে থেকেই বিরোধীদের বেঞ্চের দিকে এগিয়ে যান৷ বেঞ্চে তখন বসেছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ কে দেবগৌড়া, সমাজবাদী পার্টি নেতা মুলায়ম সিং যাদব, সংসদের বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাগড়ে প্রমুখ৷ তাদের অভিবাদন জানানোর সময় কর জোড়ে নমস্কার করেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীকে৷ মল্লিকার্জুন খাগড়ে ও মুলায়ম সিং যাদবের সঙ্গে কিছুক্ষণ কথাও বলতে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে৷
বেঞ্চের দ্বিতীয় সারিতে বসা কংগ্রেস সহসভাপতি রাহুল গান্ধী ও নেতা জ্যোতিরাদিত্যকে দেখেও অভিবাদন জানান প্রধানমন্ত্রী৷ লোক জনশক্তি পার্টির সাংসদ রামচন্দ্র পাসওয়ানকে প্রধানমন্ত্রীর পা ছুঁতে দেখা যায়৷

সংসদ কক্ষে প্রবেশের পর বিজেপির সাংসদরা সৌজন্যবশত চেয়ার থেকে উঠে দাঁড়ান৷ প্রধানমন্ত্রী আসন গ্রহণ করার পরই তারা চেয়ারে বসেন৷

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে সংসদে বাদল অধিবেশন শুরু হল৷ তিন সপ্তাহ ধরে চলবে এই অধিবেশন৷ এই সময়ের মধ্যে নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হবে৷ সংসদে প্রবেশের আগে মিডিয়ার মাধ্যমে সব রাজনৈতিক দলকে একজোট হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, বাদল যেমন আশা নিয়ে আসে তেমন এই অধিবেশন কিছু না কিছু আশা নিয়ে আসবে৷ সব সাংসদরা দেশের উন্নতির জন্য সঠিক ভূমিকা পালন করবে৷