নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে মন্তব্য করে প্রবল বিতর্কে জড়ালেন কংগ্রেস নেতা শশী থারুর৷ সোমবার প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করতে গিয়ে জানান, মোদী একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষকে পছন্দ করেন না৷ বলেন, ‘‘বিজেপির স্লোগান সবকা সাথ সবকা বিকাশ৷ কিন্তু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষকে পছন্দ করেন না৷ এবং তাদের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়াচ্ছেন৷’’

নাম না করলেও তিনি এই বিশেষ সম্প্রদায় বলতে মুসলিমদেরই বুঝিয়েছেন৷ কেননা থারুরের পর্যবেক্ষণ মুসলিমদের কোনও অনুষ্ঠানে মোদী তাদের দেওয়া টুপি বা পোশাক পড়তে চান না৷ নিজের মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে তিনি বোঝাতে চেয়েছেন মোদী আসলে মুসলিমদের পছন্দ করেন না৷

শুধু মুসলিম নয়, নাগাদের ‘হাস্যকর’ মাথার পোশাক পড়া নিয়ে মোদীকে কটাক্ষ করেছেন থারুর৷ যথারীতি এই মন্তব্যের প্রবল সমালোচনা শুরু হয়েছে গেরুয়া শিবিরে৷ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরণ রিজুজু শশী থারুরের এই মন্তব্যের জন্য কংগ্রেসকে ক্ষমা চাইতে হবে বলে দাবি করেন৷ ট্যুইট করে কিরণ রিজুজু লেখেন, আদিবাসী ও নাগাদের মাথার পোশাক থারুরের কাছে হাস্যকর ও অদ্ভূদ মনে হয়৷ তিনি এই মন্তব্য করে উত্তর-পূর্ব ভারতের নাগরিক, নাগা ও অন্যান্য আদিবাসী সম্প্রদায়ের ভাবাবেগে আঘাত করেছেন৷ কংগ্রেসকে এর জন্য ক্ষমা চাইতে হবে৷

তবে এই সব মন্তব্য নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ থারুর৷ সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান, এটা তাঁর পর্যবেক্ষণ৷ এই নিয়ে এত বিক্ষোভ দেখানোর কোনও প্রয়োজন নেই৷ মোদী অনেক অনুষ্ঠানে যান৷ অনেক ধরনের টুপি ও পোশাক পড়তে দেখা যায় তাঁকে৷ কিন্তু কখনও তাঁকে মুসলিমদের টুপি পড়তে দেখা যায়নি৷ তিনি দেশের সব নাগরিকের প্রধানমন্ত্রী৷ এভাবে বাছবিচার করা প্রধানমন্ত্রীকে শোভা পায় না৷ তিনি বাছবিচার করছেন৷ তাহলে এই নিয়ে কথা বলতে দোষের কোথায়?

কয়েকদিন আগেই ‘হিন্দু পাকিস্তান’ মন্তব্য করে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েন শশী থারুর৷ বলেন, ‘‘আগামী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি জিতে এলে দেশটাকে হিন্দু পাকিস্তান করে তুলবে৷’’