নয়াদিল্লি: রবিবারই শেষ হচ্ছে লকডাউন ৪.০ -এর মেয়াদ। শুক্রবারই মোদী-শাহের বৈঠক হয়েছে লকডাউনের পরবর্তী পর্যায় নিয়ে। এবার লকডাউন চালিয়ে যাওয়া হবে, না তা আংশিক প্রত্যাহার করা হবে, নাকি সম্পূর্ণ তা খুলে দেওয়া হবে তা হয়তো জানা যাবে শনিবারেই। সম্ভবত আজই সেই সিদ্ধান্তের কথা জানা যাবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে এব্যাপারে বিভিন্ন সেক্টর ও রাজ্যগুলির দেওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করতে বলা হয়েছে। এমনকি কিছু রাজ্য ইতিমধ্যেই লকডাউন বাড়িয়েছে। জানা যাচ্ছে, কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলি লকডাউন বন্ধের কথা বলছে। কর্ণাটকের মতো রাজ্যগুলি ধর্মীয় কেন্দ্রগুলি পুনরায় চালু করার দাবি জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, মার্চের শেষের দিকে দেশ লকডাউন হয়ে যাওয়ার পর থেকে ধর্মীয় স্থান, যে কোনও সমাবেশের ওপর বাধা নিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

অন্যদিকে এদিকে, সংবাদসংস্থা এএনআই-কে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ন্ত জানিয়েছেন, অমিত শাহের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে। আরও ১৫ দিন লকডাউন বাড়তে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। তবে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, আরও কিছু ক্ষেত্রে নিয়ম শিথিল করা উচিৎ। সোশ্যাল ডিসট্যান্স বজায় রেখে রেস্তোরাঁ, জিম খুলে দেওয়ার কথাও বলেন তিনি।

একটি সূত্র জানাচ্ছে, লকডাউনের পরবর্তী ক্ষেত্রে কেন্দ্রের সিদ্ধান্ত মানতে প্রস্তুত রয়েছে দেশের বেশ কটি রাজ্য। এখন কেন্দ্র লকডাউন নিয়ে আজই কিছু জানায় কিনা সেটাই দেখার।

তবে লকডাউন ৪ এর শেষ সীমায় দাঁড়িয়েও দেশ করোনার মারাত্মক বিপদের মুখে দাঁড়িয়ে। আমেরিকার জন হপকিন্স ইউনিভারসসিটির তথ্য বলছে করোনায় মৃত্যুর বিচারে চিনকেও পিছনে ফেলেছে ভারত। আক্রান্ত হয়েছেন চিনের থেকে প্রায় দ্বিগুণ সংখ্যার মানুষ।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV