আর্কাইভ

কলকাতা: এবার এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেও শুরু হয়ে গেল প্লাজমা থেরাপিতে করোনা চিকিৎসা। দেশের একাধিক রাজ্যে প্লাজমা থেরাপিতে করোনার চিকিৎসা চলছে। আগে এরাজ্যেও প্লাজমা থেরাপিতে করোনার চিকিৎসা শুরু হয়েছে। এবার কলকাতার এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেও করোনামুক্তের প্লাজমা নিয়ে আক্রান্তদের সারিয়ে তোলার চেষ্টা শুরু করে দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

গোটা বিশ্ব করোনার গ্রাসে। করোনা তাণ্ড চালাচ্ছে এদেশেও। বাংলাতেও প্রতিদিন হাজার-হাজার মানুষ নতুন করে সংক্রমিত হচ্ছেন। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এর আগেও চিকিৎসদের একটি বড় অংশ প্লাজমা থেরাপি নিয়ে সওয়াল করেছেন।

তবে আইসিএমআর অবশ্য প্লাজমা থেরাপিতে করোনা চিকিৎসা নিয়ে আশার বাণী শোনাচ্ছে না। বরং আইসিএমআর-এর তরফে জানানো হয়েছে, প্লাজমা থেরাপি ব্যাবহার করে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে উল্লেখযোগ্য ফল মিলছে না।

ফাইল ছবি

যদিও, করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীর প্রাণ বাঁচাতে প্লাজমা থেরাপিতেই ভরসা রাখছেন এনআরএস হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। প্লাজমা থেরাপিতে করোনার চিকিৎসায় অনেক রোগীরই জীবন বাঁচানো সম্ভব হচ্ছে বলে সওয়ল করছেন চিকিৎসকদের একটি অংশ। বাংলাতেও প্লাজমা থেরাপির মাধ্যমে সরকারি ও বেসরকারিস্তরে আগেই শুরু হয়ে গিয়েছে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার কাজ।

এবার প্লাজমা থেরাপির ব্যবহার শুরু এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেও। হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগ এবং ব্লাড ব্যাংকের যৌথ উদ্যোগে চলছে এই কাজ। করোনাজয়ীদের শরীর থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করে তা এনআরএস হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের দেহে প্রয়োগ করা হবে।

এর আগে রাজ্যের মধ্যে প্রথম কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেও প্লাজমা সংগ্রহ এবং তার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের কাজ শুরু হয়েছে। দেশের একাধিক রাজ্যে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি। করোনার থাবা বাংলাতেও।

প্রতিদিন রাজ্যে হাজার-হাজার মানুষ নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। রবিবার বিকেল পর্যন্ত স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বাংলায় নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২ লক্ষ ২১ হজার ৯৬০। তবে ইতিমধ্যেই ১ লক্ষ ৯৩ হাজার ১৪ জন করোনামুক্ত হয়েছেন। এরাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪ হাজার ২৯৮।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।