ওয়াশিংটন: এক মার্কিন রকেট পরিচালনা সংস্থা নয়া এক ইঞ্জিন তৈরি করছে, যা তৈরি হয়ে গেলে মাত্র ৩৯ দিনে মঙ্গল গ্রহে পৌঁছে যাওয়া যাবে। প্রকল্পটির অর্থ সাহায্য করছে নাসা।

সাধারণ মঙ্গলযান পৃথিবী পৃষ্ঠ থেকে মঙ্গলে পৌঁছতে বেশ কয়েক মাস সময় নেয়। টেক্সাসের সংস্থা অ্যাস্ট্রা রকেট কোম্পানির সিইও ফ্র্যাঙ্কলিন চাং ডিয়াজের দাবি, নয়া এই রকেক ইঞ্জিন মহাকাশ গবেষণার নয়া দিগন্ত খুলে দেবে। পৃথিবী থেকে ভিনগ্রহে যাওয়ার ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনে দেবে এই রকেট।

প্রাক্তন মহাকাশচারী ফ্র্যাঙ্কলিনের দাবি, এরকম রকেট আগে কেউ দেখেনি। এ হল প্লাজমা রকেট। নয়া রকেটটির কর্মপ্রণালী নিয়ে একটি প্রোমোশনাল ভিডিওয় তিনি বলেছেন, রেডিও ওয়েভকে ব্যবহার করে রকেটটির ইঞ্জিন এক ধরণের তড়িদাহত গ্যাসকে(প্লাজমা) প্রচণ্ড উত্তপ্ত করে দেবে। তারপর শক্তিশালী চৌম্বকক্ষেত্রের সাহায্য সেই গ্যাসকে একটি সরু ফানেলের সাহায্যে বাইরে বার করে দেওয়া হবে। এর ফলে প্রচণ্ড উর্দ্ধমুখী শক্তি তৈরি হবে, যা রকেটটিকে পৃথিবীর মাধ্যকর্ষণ শক্তি কাটিয়ে মহাকাশে পাঠিয়ে দেবে অত্যন্ত দ্রুত গতিতে।

আগামী তিন বছরের মধ্যে এই রকেট তৈরি করে নাসার হাতে তুলে দেবে সংস্থাটি। প্রকল্পটির জন্য ১০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে নাসা।