তুরিন: চোটের কারণে একাদশে ছিলেন না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। যদিও পর্তুগিজ সুপারস্টারের অনুপস্থিতি জুভেন্তাসের জয়ের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াল না। মঙ্গলবার রোনাল্ডোকে ছাড়াই ব্রেসিয়াকে হারিয়ে সিরি-‘এ’ লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে এল মৌরিজিও সারির দল। পিছিয়ে পড়েও ২-১ গোলে এদিন জয় তুলে নিল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

নির্বাসন কাটিয়ে ঘরের মাঠে নিজের হোমটাউন ক্লাব ব্রেসিয়া’র হয়ে এদিন অভিষেক ঘটে মারিও বালোতেলির। তাই বিতর্কিত ইতালিয়ান স্ট্রাইকারের দিকে স্বাভাবিকভাবেই ছিল বাড়তি নজর। ঘরের মাঠে এদিন ম্যাচের শুরুতেই গোল তুলে নেয় ব্রেসিয়া। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে বক্সের কোনাকুনি জোরালো শটে জুভেন্তাস গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন আলফ্রেডো দোন্নারুমা। পিছিয়ে পড়ে বিপক্ষ রক্ষণে জুভেন্তাস আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ালেও ডেডলক খুলছিল না কিছুতেই।

এরইমধ্যে বালোতেলির গোলার মত ফ্রি-কিক দুরন্ত দক্ষতায় ক্রসবারের উপর দিয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট করতে সমর্থ হন জুভেন্তাস গোলরক্ষক সেজনি। বিরতির ঠিক আগেই সমতায় ফেরে তুরিনের ক্লাবটি। তবে এক্ষেত্রে ত্রাতা হয়ে ওঠেন ব্রেসিয়া ডিফেন্ডার জন চ্যান্সেলর। পাওলো দিবালার কর্নার থেকে ভেসে আসা বল তাঁর মাথায় লেগেই প্রবেশ করে জালে। ম্যাচে সমতায় ফেরে জুভেন্তাস।

বিরতির পর প্রতিপক্ষকে আরও চেপে ধরে জুভেন্তাস। ৫৩ মিনিটে আর্জেন্তাইন স্ট্রাইকার গঞ্জালো হিগুয়েনের একটি ক্লোজ রেঞ্জ শট থেকে জুভেন্তাসের অবধারিত গোল প্রতিহত হয় ব্রেসিয়া গোলরক্ষক জেসে জোরোনেনের দস্তানায়। এরপরই বক্সের মধ্যে র‍্যাবিয়টের একটি দুরন্ত সাইডভলি গোললাইন সেভ করে আত্মঘাতী গোলের ক্ষতে কিছুটা প্রলেপ দেন চ্যান্সেলর। তবে দ্বিতীয় গোল থেকে মৌরিজিও সারির দলকে বঞ্চিত করতে পারেনি ব্রেসিয়া রক্ষণ। ৬৩ মিনিটে ডিবালার ফ্রি-কিক মানবপ্রাচীরে লেগে প্রতিহত হলে ফিরতি বলে দূরপাল্লার শট নেন মিরালেম পিয়ানিচ।

বসনিয়া-হার্জেগোভিনা মিডফিল্ডারের দুরন্ত শট এক্ষেত্রে খুঁজে নেয় গোলের ঠিকানা। দলকে দ্বিতীয় গোল এনে দেওয়ার পাশাপাশি ৩ পয়েন্টও নিশ্চিত করেন পিয়ানিচ। এই জয়ের ফলে ইন্টার মিলানকে টপকে লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে এল জুভেন্তাস। ৫ ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের পয়েন্ট সংখ্যা ১৩। দ্বিতীয়স্থানে থাকা ইন্টার মিলানের পয়েন্ট ৪ ম্যাচ খেলে ১২। আপাতত সবক’টিতেই জয় পেয়েছে তারা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ