নয়াদিল্লি: রেল নিয়ে মানুষের ক্ষোভ নতুন কিছু নয়। মুহুর্মুহু দুর্ঘটনা থেকে শুরু করে খাবারের পরিমাণ ও গুনগত মান, সময়বিধি এবং গতিবিধির ওপর নিয়ন্ত্রন না থাকা এই সমস্ত কিছুই ভারতীয় রেলকে জনতার ক্ষোভের কাঠগড়ায় তুলেছে। অভিযোগের তীর স্বাভাবিকভাবেই ধেয়ে এসেছে ভারতীয় রেলের ওপর। তাই সাধারণ মানুষের কাছে নিজেদের আস্থা পুনরুদ্ধারে নামল ভারতীয় রেল।

ভারতীয় রেলের কর্মকাণ্ড স্বচ্ছ করে আম জনতার সামনে তুলে ধরতে এক নয়া পদক্ষেপ নেওয়া হল। সোমবার ” ই- দৃষ্টি ” নামে এক নতুন অ্যাপের উদ্বোধন করলেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল। এবার রেলের তথ্য পাওয়া আরও সহজ হয়ে গেল মানুষের কাছে। বর্তমানে রেল সম্পর্কিত একাধিক অ্যাপ রয়েছে। কিন্তু “ই- দৃষ্টি” অ্যাপের
নজরদারিতে থাকবেন খোদ রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল।

এই অ্যাপে তিনি নজর রাখবেন- দেশের সমস্ত প্রান্তের ট্রেনের গতিবিধি, সময় বিধি, মালবাহী ও যাত্রীবাহী ট্রেনের উপার্জন, মালের লোড-আনলোড, রেলের গুরুতর প্রকল্প গুলির উন্নতির খতিয়ান, সাধারণ মানুষের অভিযোগ, রেল স্টেশনের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ।

রেলের পরিবেশিত খাবারের পরিমাণ ও গুনগত মান সম্পর্কেও প্রায়শই অভিযোগ আসছে। তাই এই বিষয়টিতে বিশেষ নজর দিতে আইআরসিটিসির পাকশালায় কি চলছে তাও লাইভ ভিডিওর মাধ্যমে সরাসরি দেখতে পারবেন তিনি। ট্রেনের সংরক্ষিত ও অসংরক্ষিত আসনের বিষয়টিও দেখতে পারবেন। নজরে রাখতে পারবেন দেশের যে কোন প্রান্তের ট্রেনের তৎক্ষণাৎ অবস্থান।

যাত্রীরাও এই অ্যাপের মাধ্যমে খুব সহজে হাতের মুঠোয় পেয়ে যাবেন রেলের সময় বিধি থেকে শুরু করে যাবতীয় তথ্য। দেশের যে কোন প্রান্তে বসে এই ড্যাশবোর্ডের সুবিধা পেতে পারেন মানুষ। অনলাইনে www.raildrishti.cris.org.in-এ লগ ইন করেও এই অ্যাপের সুবিধা পাওয়া যাবে। সেন্টার ফর রেলওয়ে ইনফরমেশন সিস্টেম(সিআরআইসি) এই অ্যাপের নির্মাণ করেছে।

রেলমন্ত্রী এদিন বললেন, “ই- দৃষ্ট ” রেলকে আরও সহজ করে তুলবে মানুষের কাছে। এখন মানুষ আঙুলের একটি মাত্র ছোঁয়ায় ট্রেনের সমস্ত বিষয় জানতে পারবেন।