স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সোমবার সকালেই কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তীর ডিভিশন বেঞ্চে একটি মামলা দায়ের করে রাজ্য বিজেপি৷ এদিনই আবার হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত ডিভিশন বেঞ্চে রথযাত্রা বন্ধ করার আবেদন করে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়৷

বিজেপির বিতর্কিত রথ যাত্রা বন্ধ করতে চেয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন আইনজীবী রমাপ্রসাদ সরকার। তাঁর বক্তব্য এই রথযাত্রার ফলে রাজ্যের আইন শৃংখলার অবনতি ঘটতে পারে৷ এছাড়াও, এর ফলে জনজীবন স্তব্ধ হয়ে যেতে পারে, সাধারণ মানুষকে অসুবিধার সম্মুখীন হতে হবে৷ মঙ্গলবার জোড়া মামলার শুনানি সিঙ্গল ও ডিভিশন বেঞ্চে বলে জানা গিয়েছে।

এরআগে, রথযাত্রা (বা গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রা) নিয়ে ফের কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় রাজ্য বিজেপি৷ মামলায় বলা হয়েছে, অবিলম্বে রাজ্য সরকারকে গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রা করতে দিতে হবে ৷ হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ যে অর্ডার দিয়েছে, সেখানে বলা হয়েছে, রাজ্য সরকারকে রথযাত্রা বাতিল করতে হলে অকাট্য যুক্তি দিতে হবে ৷ ইংরাজিতে Cogent Reason শব্দবন্ধ করা হয়েছে ৷ রাজ্য সরকার, এমন কিছু সংগঠনের নাম করে যাত্রা বাতিল করেছে, তারা এই যাত্রার সঙ্গে যুক্ত নয় ৷

বিজেপির মামলার শোনার পর বিচারপতি বলেছেন, এই মামলার দ্রুত শুনানি সম্ভব নয৷ মঙ্গলবার পরবর্তী শুনানি হবে৷ শনিবার রাতে রাজ্য সরকারকে ওই চিঠি ফ্যাক্স বার্তার মাধ্যমে পাঠিয়ে দিয়েছে নবান্ন ৷ তবে নবান্নের দু-পাতার ফ্যাক্স বার্তা দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহকে পাঠাতেও দেরি করেনি বিজেপি নেতৃত্ব৷ রাজ্যের বার্তা হাতে আসার সঙ্গে সঙ্গেই তা অমিত শাহের দফতরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে৷