ম্যানিলাঃ  গত কয়েকদিন আগেই ফিলিপিন্সে আঘাত এনেছে টাইফুন ফানফোন। প্রায় ঘন্টায় ১৮০ বেগে এই ঝড় আছড়ে পড়ে। টাইফুনের আঘাতে লন্ডভন্ড দেশ। ভেঙে পড়েছে সে দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা। একই সঙ্গে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। প্রবল ঝড়ে সে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৮। এমনটাই জানিয়েছেন ফিলিপিন্সের প্রশাসনিক আধিকারিকরা। বড়দিনের আগে আগে মঙ্গলবার গভীর রাতে প্রবল ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি নিয়ে টাইফুনটি দক্ষিণ-পূর্ব দেশটির মধ্যাঞ্চলের প্রদেশগুলোতে আছড়ে পড়েছিল।

প্রশাসনিক আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত ১২ জনের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। যদিও দুর্যোগ মোকাবিলা দল যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে নিখোঁজদের খোঁজ চালাচ্ছে।

বুধবার গভীর রাতে টাইফুনটি ফিলিপিন্স আছড়ে পড়ার পর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হলে জরুরি বিভাগের কর্মীরা জোর উদ্ধারকাজ শুরু করে। ফিলিপিন্সের একাংশ সম্পূর্ণ বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে ঝড়ের পর। যদিও পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক করার চেষ্টা করা হচ্ছে। বাসিন্দাদের অনেকে নিজেদের ক্ষতিগ্রস্ত ঘর মেরামতেও চেষ্টা করছেন। অন্যদিকে, ফানফোনের কারণে শতাধিক ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। সে দেশের দুর্যোগ মোকাবিলা দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, “মানুষ ভাবেইনি যে ঝড়টি এত ধ্বংসাত্মক হবে,” চলতি বছর আঘাত হানা অন্যান্য ঝড়ের তুলনায় কম শক্তিশালী হলেও ফানফোন ফিলিপিন্সের তুলনামূলক দরিদ্র ও অনুন্নত এলাকায় আঘাত হানায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয়েছে বলেও ধারণা তাঁর।