নয়াদিল্লি : সরকারি তেল সংস্থাগুলি জুলাই মাসে একাধিকাবার ডিজেলের দাম বাড়িয়েছিল। তবে ২৯ জুনের পর থেকে পেট্রোলের দামে কোনও বদল হয়নি। গত কয়েকদিন ধরে পেট্রোল ও ডিজেলে কোনওটির দামেই কোনও বদল করা হয়নি। তেলের মূল্যবৃদ্ধির উপর ব্রেক লাগায় বেশ কিছুটা স্বস্তিতে সাধারণ মানুষ, তা বলা যেতেই পারে।

দিল্লি- পেট্রোল ৮০.৪৩ টাকা, ডিজেল ৭৩.৫৬ টাকা , মুম্বই- পেট্রোল ৮৭.১৯ টাকা, ডিজেল ৮০.১১ টাকা , কলকাতা- পেট্রোল ৮২.০৫ টাকা, ডিজেল ৭৭.০৬ টাকা , চেন্নাই- পেট্রোল ৮৩.৬৩ টাকা, ডিজেল ৭৮.৮৬ টাকা , নয়ডা- পেট্রোল ৮১.১৪ টাকা, ডিজেল ৭৩.৮৭ টাকা , গুরুগ্রাম- পেট্রোল ৭৮.৬৯ টাকা, ডিজেল ৭৪.০৩ টাকা, লখনউ- পেট্রোল ৮১.০৪ টাকা, ডিজেল ৭৩.৭৭ টাকা, পটনা- পেট্রোল ৮৩.৩১ টাকা, ডিজেল ৭৮.৭২ টাকা, জয়পুর- পেট্রোল ৮৭.৬০ টাকা, ডিজেল ৮২.৬২ টাকা

প্রতিদিন সকাল ৬টায় সরকারি তেল সংস্থাগুলির তরফে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম জারি করা হয়। পেট্রোল ও ডিজেলের দামে এক্সাইজ ডিউডি, ডিলার কমিশন ও অন্যান্য চার্জ যুক্ত করার পর উপভোক্তাদের দ্বিগুণ দাম দিয়ে তেল কিনতে হয়। আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম ও ডলারের তুলনায় টাকার দামের উপর নির্ভর করে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম।

পাশাপাশি বিভিন্ন রাজ্যে পেট্রোল ও ডিজেলের উপর আলাদা আলাদা ভ্যাট নেওয়া হয়। ফলে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম আলাদা হয়। ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি দেখে সম্প্রতি দিল্লিতে ডিজেলের ভ্যাট কমানোয় দাম অনেকটাই কমেছে। না হলে যেভাবে ডিজেলের দাম বেড়ে চলেছিল তাতে এক লিটার পেট্রোলের দামের থেকে বেশি হয়ে গিয়েছিল ডিজেলের দাম।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও