নয়াদিল্লি: রবিবার সকাল থেকেই চলছে জনতা কার্ফু। তার মধ্যেই বোমা ছোঁড়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুললেন শাহিন বাগের আন্দোলনকারীরা।

এদিন সকালে শাহিন বাগের কাছে আগুন জ্বলতে দেখা গিয়েছে। সেই ছবিও প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানে পেট্রোল বোমা ছোঁড়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

করোনার সঙ্গে যুদ্ধে রবিবার ১৪ ঘণ্টার ‘জনতা-কার্ফুর’ ডাক দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেইমত দেশের বিভিন্ন জায়গায় পালিত হচ্ছে কার্ফু। সকাল সাতটা থেকে রাত ন’টা পর্যন্ত একান্ত প্রয়োজন ছাড়া বাড়িতেই ‘বন্দি থাকার’ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আন্দোলন স্তিমিত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় সেই অনুরোধ রাখতে রাজি নয় শাহিন বাগ।

তবে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ অগ্রাহ্য করার অভিযোগ উড়িয়ে বরং বিষয়টিকে দিল্লি সরকারের নির্দেশিকা মেনে চলা হিসেবে দেখাতে চাইছেন আন্দোলনকারীরা।

আন্দোলনকারীদের অনেকের যুক্তি, দিল্লি সরকার বলার পর থেকে এক সঙ্গে ৫০ জনের বেশি বসছেন না প্রতিবাদের মঞ্চে। যারা বসছেন, তাদের মধ্যেও দূরত্ব রাখা হচ্ছে যথেষ্ট। কিছু ক্ষণ অন্তর বার বার হাত ধুচ্ছেন সকলে। ব্যবহার করা হচ্ছে হ্যান্ড-স্যানিটাইজ়ারও।

এছাড়া, মাঝেমধ্যেই বিভিন্ন জনের শরীর পরীক্ষা করছেন পাশের শিবিরের ডাক্তারেরা। কিন্তু এই মারণ রোগ ঠেকাতে সামাজিক বিচ্ছিনতাকেই যেখানে অস্ত্র করছে সারা বিশ্ব। তারই মধ্যে শাহিন বাগে চলছে আন্দোলন।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প