স্টাফ রিপোর্টার, গরুমারা : প্রায় দেড় ঘন্টা রাস্তা অবরোধ করলেন গজরাজ। বৃহস্পতিবার গরুমারা জাতীয় উদ্যানের মহাকালের পাশের রাস্তায় উঠে দাঁড়িয়ে পড়ে পূর্ণবয়স্ক দাঁতাল হাতিটি। জানা গিয়েছে হাতিটি মস্ত অবস্থায় ছিল। সেই অবস্থাতেই পড়ে যায় সেলফির হিড়িক।

মস্ত হল হাতির যৌন আকাঙ্ক্ষার সময়। দাঁতালরা মস্ত হবার মরসুমে কানের সামনে অবস্থিত “মস্তগ্রন্থি”র অত্যধিক ক্ষরণে মত্ত বেপরোয়া হয়ে ওঠে এবং দলপতি বা অন্য দাঁতাল বা যেকোনও কাউকে আক্রমণ করতে পারে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য অনুযায়ী, এদিনও হাতি দেখে যথারীতি হিড়িক পরে যায় সেলফি তোলার।

পড়ুন: মন্দিরে হামলা চালানোর সাহস পায় না জঙ্গিরা: মোদী

সেই সঙ্গে পর্যটকদের জিপসি গাড়ির চালক ও গাইডদের হাতির খুব কাছাকাছি গিয়ে নিজেদের গ্রাহকদের খুশি করার চেষ্টাও হাতিটিকে যথেষ্ট বিরক্ত করে। হাতিটি মস্ত অবস্থায় থাকায় যেকোনও মুহূর্তে আবার কোনও অনভিপ্রেত ঘটনা ঘটে যেতে পারতো। তবে শেষ পর্যন্ত ততেমন কিছু ঘটেনি। তবে প্রায় দেড় ঘন্টা রাস্তা আটকে রেখেছিল হাতিটি। অবশেষে বিকেল ৪টে নাগাদ রাস্তা থেকে সরে যায় হাতি।

হাতি দলবদ্ধ জন্তু। দলপতি হয় সবথেকে শক্তিশালী দাঁতাল। দলের কেন্দ্রে বাচ্চাদের ঘিরে থাকে মা-দিদিমারা। বাচ্চারা বড় হলে দলের বাইরের সারীতে স্থান নেয়। দলছুটও হতে থাকে। পরিণত দাঁতালরা নিজেদের দল গঠনের চেষ্টা করে।