স্টাফ রিপোর্টার, রাঙ্গালিবাজনা: কিছুদিন আগেই ঘরের বেড়া ভেঙে খাট থেকে শুর দিয়ে লেপ তুলে নিয়ে গিয়েছে হাতি। কখনও ঘরদোর ভাঙচুর হয়েছে তাণ্ডবে। সংরক্ষিত জঙ্গলের আশেপাশের বস্তির মানুষেরা প্রায়ই হাতির আক্রমণের মুখোমুখি হন। এবার হাতির হাত থেকে বাঁচতে নিজের ছেলেকে বক্স খাটের ভেতর লুকিয়ে রাখলেন বাবা-মা।

শুক্রবার মধ্যরাতে প্রাণ বাঁচাতে হাতির সঙ্গে লুকোচুরি খেলতে হল গ্রামবাসীদের। বীরপাড়ার কাছে দলমোর চা-বাগানে হাতির হানায় চারটি বাড়ি তছনছ হয়ে গিয়েছে। এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন হাতির হানা রুখতে বন দফতর উদাসীন। পশ্চিম পাড়ায় পাটশলার বেড়া ভেঙে লোকজনকে আক্রমণ করার চেষ্টা করে দলছুট দাঁতাল।

অনেকক্ষণ ধরে ঘরের লোকজনকে আক্রমণ করার চেষ্টা করে দলছুট হাতি। ঘটনায় আহত হয় এক শিশু। পরে লোকজনকে না পেয়ে বিছানা থেকে লেপ তুলে নিয়ে যায় জঙ্গলে। ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকাবাসী। এছাড়াও বিভিন্ন ঘরের টিন ভেঙে গিয়েছে। ফসল নষ্ট হয়েছে হাতির অত্যাচারে।

এলাকাবাসীরা জানান প্রতি মুহূর্তে আমরা মৃত্যুর মুখোমুখি হই। হাতির ভয়ে বাচ্চাকে লুকিয়ে রাখতে হয় বক্স খাটের ভেতর। মাদারিহাট উত্তর খয়ের বাড়ি বিট অফিস সূত্রে জানা গিয়েছে হাতির হানায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সরকারি সাহায্য দেওয়া হবে। তবে নানা মহলের দাবি, শুধুমাত্র ক্ষতিপূরণ দিলেই হবে না। হাতির হানা রুখতে উপযুক্ত ব্যবস্থা করতে হবে বন বিভাগকে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প