স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বারাকপুর আদালতের নবনির্মিত ভবনটি তৈরি হয়ে পড়ে আছে এক বছরেরও বেশি ধরে। সময় অতিক্রান্ত হয়ে গেলেও সেই ভবনটি এখনও পর্যন্ত চালু হয়নি শুধুমাত্র সরকারি উদাসীনতায়। নতুন অত্যাধুনিক আদালত ভবনটি অবিলম্বে চালু করার দাবিতে সরব হল বারাকপুর আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশন সহ আদালতের আইনজীবীরা ও অন্যান্য কর্মীরা।

বারাকপুর আদালতের আইনজীবীদের দুটি যৌথ সংগঠন যৌথভাবে আদালতে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করল নব নির্মিত আদালত ভবন চালুর দাবিতে। বারাকপুর থানা সংলগ্ন বর্তমান বারাকপুর আদালত চত্বরে আইনজীবীরা ও মুহুরিরা অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হন। তাদের দাবি ছিল,যত দ্রুত সম্ভব নতুন আদালত ভবন চালু করতে হবে।

আদালতে কর্মরত আইনজীবী থেকে শুরু করে মুহুরী প্রত্যেকেরই বক্তব্য, নবনির্মিত নতুন আদালত ভবনটি বাম আমলে তৈরি হওয়া শুরু হলেও কাজ থমকে ছিল দীর্ঘদিন। পরে ২০১৭ সাল থেকে বারাকপুর প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন এলাকায় শুরু হয় নতুন আদালত ভবন নির্মানের শেষ মুহূর্তের কাজ। এক বছর আগে সেই কাজ শেষ হয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত সেই আদালত ভবনটি চালু করা সম্ভব হয়নি কোন অজ্ঞাত কারণে।

এর ফলে প্রতিদিনই ঘটছে পুরনো আদালত ভবনে দুর্ঘটনা। কারণ বারাকপুর আদালতের পুরনো ভবনটি ভগ্নদশায় পরিণত হয়েছে। কোনও সময় ছাদের চাঙ্গর ভেঙে পড়ছে আদালত কক্ষে, আবার কোন সময় সাপ বেরিয়ে আসছে এজলাসের মধ্যে। যার ফলে পুরনো আদালত ভবনে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই কাজ করতে হচ্ছে বিচারক থেকে আইনজীবী বা মুহুরিদের।

পুরনো আদালত ভবনটি কাজের অনুপযোগী, দাবি বারাকপুর আদালতের আইনজীবীদের। তাঁরা চাইছেন, নব নির্মিত আদালত ভবনটি অবিলম্বে বারাকপুর আদালতের আইনজীবীদের কাজের সুবিধার্থে চালু করুক রাজ্য সরকার। সেই কারণেই, আইনজীবীরা বারাকপুর আদালতের ভগ্নদশা প্রাপ্ত ভবনে দুদিনের অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছেন। বিক্ষোভকারী আইনজীবীরা জানিয়েছেন, যদি দুদিনের অবস্থান-বিক্ষোভে কোনও কাজ না হয় তাহলে তারা দীর্ঘ আন্দোলনের পথে যাবেন।