প্রতীতি ঘোষ, ব্যারাকপুর: উত্তর ২৪ পরগনার শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত চাষের জমিতে নির্মিত শুয়োরের খামারে আগুন লাগিয়ে দিল কৃষকেরা। অভিযোগ, চাষের জমিতে অবৈধ ভাবে তৈরি করা হয়েছিল ওই খামার।

বৈকুণ্ঠ ওরাও এবং নিভা ওরাও নামে দুই অসাধু ব্যবসায়ী শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েতের ১০ নম্বর গ্রাম সংসদের পঞ্চায়েত সদস্য প্রতিমা ঘোষকে ভুল বুঝিয়ে কৃষি জমির মধ্যে শুয়োরের খামার তৈরীর অবৈধ নির্মাণ কাজ করার চেষ্টা করলে রবিবার বিকেলে এলাকার কৃষকরা একজোট হয়ে খামারের নির্মাণ ভেঙে তাতে আগুন লাগিয়ে দেয় । এই ঘটনায় রবিবার বিকেলে শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েত সদস্য প্রতিমা ঘোষ বলেন, “আমাকে অন্য জমির কথা বলে ভুল বুঝিয়ে বৈকুণ্ঠ কাগজে স্বাক্ষর করিয়ে নিয়েছিল । এখন বুঝতে পারছি ও এই চাষের জমির মধ্যে অবৈধ উপায়ে খামার তৈরির চেষ্টা করছে । ওর এই বেআইনী কাজ আমি সমর্থন করি না । ও আমাকে ভুল বুঝিয়ে ছিল তা আমি বুঝতে পেরে পঞ্চায়েত প্রধানকে লিখিত জানিয়েছি ।”

এদিকে শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান অরুণ ঘোষ বলেন, “চাষের জমিতে অবৈধ নির্মাণ কাজ করে কেউ খামার তৈরি করবে তা হবে না । অভিযুক্ত ওই ব্যাক্তিকে অবৈধ নির্মাণ বন্ধ করতে বলেছি । বিষয়টা বিডিও এবং জেলা শাসককে জানানো হয়েছে ।” গ্রামবাসীদের বক্তব্য, এই এলাকায় ৩০০ বিঘা চাষের জমি নষ্ট হয়ে যাবে ওই খামার তৈরীর নির্মাণ কাজ হলে । এলাকার সমস্ত মানুষই কৃষিজীবী । তাই ওই নির্মাণ কাজ যাতে না হয় তাই আমরা আজ খামার তৈরীর সরঞ্জাম আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছি । এই চাষের জমিতে কোন ভাবেই অবৈধ শুয়োরের খামার আমরা তৈরী হতে দেব না ।