স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: সারা রাজ্যের সাথে বাঁকুড়াতেও মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসলেন ৫১ হাজারেরও বেশি ছাত্র ছাত্রী৷ পর্ষদ নির্ধারিত সময় দুপুর বারোটায় পরীক্ষা শুরু হয়ে বিকেল তিনটেয় শেষ হয়েছে। এবার জেলায় ১১২টি পরীক্ষাকেন্দ্রে মোট ৫১ হাজার ২২জন ছাত্র ছাত্রী জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষায় বসেছিলেন।

এর মধ্যে ছাত্র ২২হাজার ৮৯৯ জন ও ছাত্রী ২৮হাজার ১২ জন। জেলা স্কুল পরিদর্শকের কার্যালয় সূত্রে খবর, গত বছরের তুলনায় এবছর জেলায় ১৩২১ জন মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে। যার মধ্যে ছাত্রের সংখ্যা ১হাজার ৩১৭জন ও ছাত্রীর সংখ্যা ৪ জন। উল্লেখ্য, গত বছর এই জেলায় ৫২ হাজার ৩৪৩জন ছাত্র ছাত্রী মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছিল।

জেলায় মাধ্যমিকের প্রথম দিন প্রথম ভাষার পরীক্ষায় কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর নেই। পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের তরফ থেকেও কোন অভিযোগ ওঠেনি। সব মিলিয়ে নির্বিঘ্নেই শেষ হয়েছে এদিনের পরীক্ষা। মাধ্যমিক পরীক্ষা উপলক্ষ্যে জেলার সমস্ত পরীক্ষা কেন্দ্র গুলিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে প্রশাসন।

একই সঙ্গে সকাল দশটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত পরীক্ষা কেন্দ্রগুলির দু’শো মিটারের মধ্যে ১৪৪ধারা জারি করা হয়েছিল৷ পরীক্ষা চলাকালীন সংশ্লিষ্ট এলাকার সমস্ত ফটো কপির দোকান বন্ধ ও পরীক্ষার সময় প্রকাশ্যে সাউণ্ড সিস্টেম বন্ধ রাখার বিষয়ে প্রশাসনিক নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

এছাড়াও এবারই প্রথম পরীক্ষাকেন্দ্রের ভিতরে কর্মরত শিক্ষকদের মোবাইল ফোন ব্যবহারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। নির্দেশ অমান্য করে কোন শিক্ষক ঐ সময় মোবাইল ব্যবহার করলে মধ্য শিক্ষা পর্ষদের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে৷

মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরুর দিন সকালেই কোতুলপুর এলাকার পরীক্ষাকেন্দ্রগুলিতে পৌঁছে যান স্থানীয় বিধায়ক ও রাজ্যের মন্ত্রী অধ্যাপক শ্যামল সাঁতরা। তিনি পরীক্ষাকেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষমান অভিভাবকদের সাথে কথা বলেন।

পরে তিনি বলেন, জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষায় সন্তানসম ছাত্র ছাত্রীরা আজ অংশগ্রহণ করছে। তারা প্রত্যেকেই যাতে চাপমুক্ত অবস্থায় পরীক্ষা দিতে পারে তা আমাদের দেখা দরকার। প্রাণপ্রিয় ছাত্র ছাত্রীদের উৎসাহ দিতেই আজ পরীক্ষা শুরুর প্রথম দিন স্কুল গুলিতে হাজির হয়েছিলাম। একই সঙ্গে তিনি জেলা সহ রাজ্যের সমস্ত মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, সিমলাপাল ব্লক তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পক্ষ থেকে স্থানীয় মদন মোহন উচ্চ বিদ্যালয়ের সমস্ত পরীক্ষার্থীদের হাতে একটি করে কলম তুলে দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এদিন পরীক্ষাকেন্দ্রের বাইরে ছাত্র ছাত্রীদের শুভেচ্ছা জানাতে উপস্থিত ছিলেন ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রামানুজ সিংহমহাপাত্র সহ অন্যান্য দলীয় নেতৃত্ব। ব্লক তৃণমূল ছাত্র পরিষদের এই উদ্যোগে খুশি ছাত্র ছাত্রী থেকে অভিভাবক সকলেই।