স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাজ্যে বিজেপি ও তৃণমূলের বিরুদ্ধে সমান্তরাল পথেই লড়াই জারি রাখছে প্রদেশ কংগ্রেস।

একদিকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ব্যাংক, পোস্ট অফিসে সুদ কমানো , বিলগ্নিকরণ ও ছাঁটাই অন্যদিকে রাজ্যে রেশন দুর্নীতি ও সি ই এস সি -র একাধিপত্য এবং লাগামছাড়া বিদ্যুৎ মাসুলের প্রতিবাদে ১২ই সেপ্টেম্বর রানী রাসমণি এভিনিউতে প্রদেশ কংগ্রেস জনসভার ডাক দিয়েছে।

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র বলেন, ১২ সেপ্টেম্বরের পরেই কংগ্রেস এবং বামপন্থী দলগুলির ঐক্য একদম বুথস্তর পর্য্যন্ত নিয়ে যাওয়ার জন্য আলোচনায় বসা হবে। এইসব ইস্যু নিয়েই জেলাস্তরে আন্দোলনে যাওয়া হবে।

এদিকে এদিন বিধানসভায় এনআরসি বিরোধিতায় একযোগে প্রস্তাব এনেছে শাসক দল তৃণমূল, সিপিএম ও কংগ্রেস। এই প্রসঙ্গে প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন,” বাংলায় যদি NRC গঠনের চেষ্টা হয় তবে সর্বশক্তি দিয়ে বিরোধিতা করা হবে। আজ বিধানসভায় NRC -র বিরোধিতায় তিন দলের যে প্রস্তাব এসেছে তাকে প্রদেশ কংগ্রেস সমর্থন করছে। আর্থিক মন্দার বিরুদ্ধে সচতেনতা বৃদ্ধি করতে রাজ্য ব্যাপী আন্দোলন করা হবে।”

অন্যদিকে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজের জেরে বৌবাজারে যে বিপর্যয় নেমে এসেছে সে প্রসঙ্গে প্রদেশ সভাপতি একটি ENQUARY COMMISION গঠনের দাবি করেছেন। প্রসঙ্গত এই এলাকার সাত বারের বিধায়ক ছিলেন সোমেন মিত্র।

লোকসভার কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরীও এদিন বলেন, “কার নির্দেশে বৌবাজারের জনবহুল এলাকার নীচ থেকে সুড়ঙ্গ গেল তা তদন্ত করে দেখা উচিত।”