লাহোর: পাকিস্তান সফর চলাকালীন যে কোনও মুহূর্তে সন্ত্রাসবাদী হামলার শিকার হতে পারে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। সম্প্রতি পাক প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিশ্বস্ত সূত্রে এমন সম্ভাব্য সন্ত্রাসবাদী হামলার খবর পৌঁছতেই নড়েচড়ে বসেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। স্বাভাবিকভাবে এমন খবর কানে আসতেই চলতি মাসের শেষদিকে পাকিস্তান সফর নিয়ে তাদের পরিকল্পনা পুনর্বিবেচনার রাস্তায় হাঁটে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড।

ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কাছে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলতে চেয়ে দরবার করে দ্বীপ রাষ্ট্রের ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু সেই সম্ভাবনা একেবারেই নেই, জানিয়ে দিল পিসিবি। তাদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড গোটা বিষয়টির উপর কড়া নজর রাখছে। কিন্তু সিরিজ নিরপেক্ষ ভেন্যুতে নিয়ে যাওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই। পিসিবি একটি রিপোর্টে জানিয়েছে, নিরপেক্ষ ভেন্যুতে সিরিজ সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হলে পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে ফিরিয়ে আনার প্রচেষ্টা বিশ বাঁও জলে চলে যাবে।

একইসঙ্গে তারা জানিয়েছে, এইমুহূর্তে সিরিজের ম্যাচগুলি নিরপেক্ষ ভেন্যুতে সরানো মানে বিদেশি ক্রিকেটারদের কাছেও একটি খারাপ বার্তা পৌঁছবে। আগামিদিনে পাকিস্তান সুপার লিগে ক্রিকেটাররা খেলতে আসার আসার বিষয়ে অনীহা দেখাবে বিদেশি ক্রিকেটাররা। উল্লেখ্য, ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৯ অক্টোবরের মধ্যে লাহোর ও করাচিতে ৩টি ওয়ান-ডে ও সমসংখ্যক টি-২০ ম্যাচ খেলবে শ্রীলঙ্কা। নিরাপত্তার কথা ভেবে পাকিস্তান সফর থেকে ইতিমধ্যেই নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন প্রথম সারির ১০ জন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার।

ফলস্বরূপ, বুধবার পাকিস্তান সফরের জন্য প্রায় ক্লাব স্তরের দল ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা। ঘোষিত দল অনুযায়ী ওয়ান ডে সিরিজে শ্রীলঙ্কাকে নেতৃত্ব দেবেন লাহিরু থিরিমানে ও টি-২০ সিরিজের জন্য দলনায়ক বেছে নেওয়া হয়েছে দাসুন শানাখা’কে। ২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কার টিম বাসে জঙ্গি হামলার পর এখনও অবধি প্রথম সারির কোনও দেশের সঙ্গে পূর্ণ দৈর্ঘ্যের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়নি পাকিস্তানে। ২০১৭ অক্টোবরে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল সেদেশের মাটিতে একটিমাত্র টি-২০ ম্যাচ খেলেছিল। এছাড়া গত দু’বছরে আইসিসি বিশ্ব একাদশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ পাকিস্তানের মাটিতে টি-২০ সিরিজে অংশগ্রহণ করেছিল।